logo

   

রাজশাহীর জনসাধারনকে তাদের দাবীর বিষয়ে সচেতন হতে হবে - শামীম আহমেদ

Photo

(ডিজিটেক ভ্যালীর IT Manager হিসেবে আইটির বিভিন্ন কর্মকান্ডে আমি জড়িত। কাজ করতে করতে একদিন হঠাৎ করেই মনে হলো আইটি নিয়ে কাজ করলে রাজশাহী কেন নয়? ইন্টারনেটের যুগে -IT নিয়ে কাজ করতে গেলে - রাজশাহী সবচেয়ে ভাল। কারন এখানে ইন্টারনেট ব্রডব্যান্ড আছে। জীবন যাত্রা তুলনামূলক ভাবে সহজলভ্য। লোকবলেরও অভাব নয়। কাজ করতে করতে কিছু সমস্যার সম্মুখীন হলেও তা আমলে নেইনি।

এর মাঝে একদিন মনে হলো রাজশাহীকে নিয়ে একটি ওয়েব পোর্টাল করলে কেমন হয়? দেশবাসীর কাছে বিশেষ করে রাজশাহীবাসী কে কিছু সেবা-বিনোদন এবং রাজশাহীকে তুলে ধরার জন্য এর বিকল্প নাই।

ওয়েব পোর্টাল এর সুত্র ধরেই রুয়েটের এক সম্ভাবনাময় তরুন ছাত্র আমাদের সাথে দেখা করতে আসে। উদ্দেশ্য রাজশাহী কে একটি আইটি নগরী হিসেবে গড়ে তোলা। উদ্যমী এই তরুন কে নিয়েই এবার আমাদের এই সাক্ষাতকার পর্ব। - মাহমুদ রিয়াদ, আইটি ম্যানেজার, ডিজিটেক ভ্যালী)

আমাদের রাজশাহী ডট কমের এই সাক্ষাতকার পর্বটি গ্রহন করেছেন মাহমুদ রিয়াদ (পলাশ)। সাক্ষাতকারের চুম্বক অংশ নিচে তুলে দেয়া হলোঃ


আমাদের রাজশাহী ডট কম :- আপনার পুরো নাম কি?
শামীম আহমেদ :- শামীম আহমেদ

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- আপনার দেশের বাড়ী(জেলা) কোথায়?
শামীম আহমেদ :- গ্রামঃ গোপীনগর
পোঃ পত্নীতলা
পত্নীতলা- নওগাঁ

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- আপনার পড়াশোনার সম্পর্কে কিছু বলুন।
শামীম আহমেদ :- এস,এস,সি- পত্নীতলা উচ্চ বিদ্দ্যালয়- ,পত্নীতলা-নওগাঁ
এইচ,এস,সি- রাজশাহী সরকারী সিটি কলেজ, রাজশাহী
বি,এস,সি- ইঞ্জিনিয়ারিং- রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্দ্যালয়।
সি,সি,এন,এ (নেটওয়াকিং-সিসকো)- লোকাল রিজিওনাল সেন্টার রুয়েট, রাজশাহী

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- বর্তমানে আপনি কোথায় থাকেন?
শামীম আহমেদ :- রুম নং-১৪০
শহীদ লেঃ সেলিম হল
রুয়েট, রাজশাহী

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- পড়াশোনার ক্ষেত্রে আপনি কেন কম্পিউটার সায়েন্সকে বেছে নিলেন?
শামীম আহমেদ :- অনেক ছোট থেকেই আমার কম্পিউটার পড়ার খুব ইচ্ছা ছিল। তাছাড়া এই বিষয়টি আমি আগেই জানতাম কম্পিউটার সায়েন্স একটা অনেক সম্ভাবনাময় বিষয়। এই বিষয়টি জেনে স্বাধীন ভাবে কাজ করা যায়। কাজ জানলে নিজের ঘরে বসেও অনেক আয় করা সম্ভব যেটা অন্য কোন পেশার ক্ষেত্রে এতো বেশি স্বাধীনতা পাওয়া যায় না।

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- আপনার ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি?
শামীম আহমেদ :- কম্পিউটার সায়েন্স ফিল্ডে নিজেকে অনেক দক্ষ করে তোলা। শেষে নিজের পজিশন থেকে দেশকে কিছু দেওয়া।

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- আপনি বর্তমানে কোনো আইটি কর্মকান্ডে জড়িত কি না?
শামীম আহমেদ :- রাজশাহীতে একটি আইটি নগরী গড়ে তোলার ক্ষেত্রে একজন উন্নয়ন কর্মী।

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- রাজশাহীতে আইটির ভবিষ্যত কেমন?
শামীম আহমেদ :- এক কথায় বলতে গেলে খুবই উজ্জ্বল।রাজশাহী এমনই একটা শহর এর বিকল্প খুজে পাওয়া অনেক কঠিন। বিশেষকরে পুরো বাংলাদেশের ডেটা সেন্টারগুলো ঢাকার পাশাপাশি রাজশাহীতে করা উচিত। এইটা হবে ব্যাক-আপ সেন্টার। জলবায়ু পরিবর্তনে ঢাকা কিংবা অন্য কোন শহরে যে ক্ষতি হওয়ার কথা সেক্ষেত্রে রাজশাহী অনেক নিরাপদ। তাছাড়া রাজশাহীতে লোকবল এর কোন অভাব হবে না। এখান থেকে প্রতি বছর প্রায় ২০০ সি,এস,ই গ্রাজুয়েট পাস করে বের হয়। এখানকার লোকবল দিয়েই রাজশাহী আইটি নগরী পরিচালনা করা সম্ভব।

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- রাজশাহীতে আইটি উন্নয়নে আপনার উদ্যোগ ও মতামত কি?
শামীম আহমেদ :- এখন যেটা প্রথমেই করা উচিত তা হলো রাজশাহীর জনসাধারনকে তাদের দাবীর বিষয়ে সচেতন হতে হবে, তারপর সংসদ সদস্য, মেয়র মহোদয়কে এগিয়ে আসতে হবে। যারা কাজ করছে তাদেরকে নিজ নিজ পজিশন থেকে হেল্প করতে হবে, যেন এই উদ্যোগটা থেমে না যায়।

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- রাজশাহীতে আইটি কর্মকান্ডে প্রধান বাধা কি কি বলে আপনি মনে করেন?
শামীম আহমেদ :- বাধা তেমন কিছুই না, একটি আইটি নগরী গড়ে তোলার জন্য রাজশাহীতে সব সুবিধাই আছে। শুধু আমাদের সচেতনতা দরকার। আমাদের প্রধান বাধা হচ্ছে রাজশাহীর লোকজন খুবই শান্তি প্রিয়, তারা তাদের দাবী আদায়ে সচেতন নয়। যেটা আমরা আগেও অনেক বার দেখেছি।

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- আপনি আর কি কি কর্মকান্ডে জড়িত।
শামীম আহমেদ :- আমি প্রায় সকল উন্নয়ন মুলক ভালো কাজে জড়াতে পছন্দ করি।
আমি একসময় নওগাঁ জেলা ছাত্র সমিতির ভি,পি ছিলাম, এখন দৈনিক প্রথম আলোর রুয়েটের বন্ধুসভার সভাপতির দায়িত্ব পালন করছি। সেই সাথে রাজশাহীর পিছিয়ে পড়া মানুষের ছেলে মেয়েদের জন্য একটি প্যারাল্যাল ম্যাথ স্কুল চালাচ্ছি। যেটার আয়োজনে প্রতি মাসে একটি করে স্কুলে গিয়ে ফ্রী ম্যাথ কর্মশালা করানো হয়।

আমাদের রাজশাহী ডট কম :- ব্যস্ততার মাঝেও আমাদেরকে সময দেবার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।
শামীম আহমেদ :- আপনাকেও ধন্যবাদ।

2010-01-13


এই পাতাটি ৯২০ বার প্রদর্শিত হয়েছে।


 মন্তব্য করতে লগিন করুন


  
.