logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo পঞ্চবটিতে মাদকের পাশাপাশি চলছে চুরি, ছিনতাই, জুয়া
নগরীর পঞ্চবটি এলাকায় মাদক ব্যবসার পাশাপাশি চলছে চুরি, ছিনতাই, জুয়াসহ অন্যান্য অসামাজিক কার্যকলাপ। এলাকার উঠতি বয়সী কিশোর-যুবকরা মাদক সেবনের জন্য অর্থ যোগাতে জড়িয়ে পড়ছে চুরি ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধে। এই সব মাদক ব্যবসায়ী, মাদক সেবী ও বিভিন্ন ধরনের অপরাধীদের উপদ্রুবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন এলাকার সাধারণ মানুষ। পঞ্চবটি এলাকার মানুষ জানান, পদ্মার পাড়ে বিকেলে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীরাও বিব্রতকর অবস’ায় পড়ছেন মাদকসেবী ও বখাটেদের আচরণে। পঞ্চবটি নদীর ধার এলাকায় প্রায় ২০/২২টি বাড়িতে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলে মাদক দ্রব্যের কেনা-বেচা। সেখানে মাদক ব্যবসায়ীরা এতটাই সংঘবদ্ধ যে এলাকার কেউ ভয়ে এই বিষয়গুলো নিয়ে মুখ খুলতে চাননা। পুলিশ প্রশাসন বিষয়গুলো জেনেও কোন পদক্ষেপ নেয় না। বেশ কিছুদিন আগে এসি মাহফুজুর রহমানের নেতৃত্বে ডিবি পুলিশ সেখানে লাগাতার অভিযান চালালে মাদক কেনা-বেচার প্রবণতা কিছুটা কমে এলেও বর্তমানে আবারো জমজমাট হয়ে উঠেছে। বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলেও ওই এলাকায় মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন অসামাজিক কার্যকলাপ অনেকাংশে কমে এসেছিলো। এলাকাবাসী আরো জানান, কমিউনিটি পুলিশ এলাকায় মাদক ব্যবসা বন্ধ করার উদ্যোগ নিলেও সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে তারা অনেকটা অসহায় হয়ে পড়েছেন। বেশ কিছুদিন আগে মাদক ব্যবসায়ীদের দ্বারা কমিউনিটি পুলিশের সদস্য রবিউল মারাত্মক আহত হওয়ার পরেও ওই ব্যাপারে প্রশাসন থেকে তেমন কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। শুধু তাই নয়, পুলিশ সদস্যদের উপরেও হামলা চালিয়েও বহাল তবিয়তে রয়েছে মাদক ব্যবসায়ীরা। এলাকায় ঘুরে উঠতি বয়সী কিশোরী ও যুবকদেরকে প্রকাশ্যে মাদক সেবন করতে দেখা গেছে। সেখানে আড়ালে চলছে জুয়ার আড্ডা। শিশুদেরকে ব্যবহার করা হচ্ছে মাদক বিক্রির কাজে। এলাকাবাসী বলেছেন, কারা মাদক বিক্রি করে সেটা প্রশাসনের অজানা নয়। এলাকায় অনেক মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলাও রয়েছে। তবে বোসপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির একজন কর্মকর্তা দাবি করেছেন, এলাকায় মাদক দ্রব্যের কেনা-বেচা আগের চেয়ে কম। সুএ:সোনালী সংবাদ

পাতাটি ২৬১ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন