logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo ছাত্রমৈত্রীর কর্মসভায় যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ত্বরান্বিত করার দাবি
ছাত্রমৈত্রী জেলা ও মহানগর কমিটির উদ্যোগে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকার্য ত্বরান্বিত করার দাবিতে কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। ছাত্রমৈত্রীর কেন্দ্রিয় সহ-সভাপতি ও মহানগর সভাপতি মতিউর রহমান মতির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মী সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, ওয়ার্কার্স পার্টির সদস্য সম্পাদক দেবাশিষ প্রামাণিক দেবু্‌, অন্যান্যের মধ্যে উপসি’ত ছিলেন, মহানগরের সাবেক জেলা যুগ্ম আহবায়ক শামীম ইমতিয়াজ সুমন, যুবমৈত্রীর সাবেক প্রচার সম্পাদক শহিদুল ইসলাম তুহিন, জেলা ছাত্রীমৈত্রীর সভাপতি মনিরুল ইসলাম, মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক বিমান চক্রবর্তী, জেলা সহ-সভাপতি ছানাউল্লাহ ছানা, সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ন, মহানগর সহ-সাধারণ সম্পাদক সুভাষ চন্দ্র হেমব্রম, পলেটেকনিক শাখার সভাপতি কাজী আব্দুল মোতালেব জুয়েল, রাজশাহী কলেজ শাখার সভাপতি ইমাম হোসেন, নিউ গভ: ডিগ্রি কলেজ শাখার সভাপতি কাউসার আহম্মেদ, মহানগর অর্থ সম্পাদক রাতুল আহম্মেদ, শিক্ষা ও রাজনৈতিক সম্পাদক মামুন শেখ রতন, স্কুল বিষয়ক সম্পাদক মুরাদ হোসেন প্রমুখ।
কর্মী সভায় বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার ৩৯ বছর পরও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্য ত্বরান্বিত করার জন্য আন্দোলন সংগ্রাম করতে হচ্ছে। যারা এদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামকে মেনে নেয়নি, হত্যা ধর্ষণ, লুটতারাজ করেছে এবং মানবতা বিরোধী অপকর্ম চালিয়েছে তাদের বিচার অবিলম্বে বাস্তবায়নের দাবি জানানো হয়। বক্তারা আরো বলেন, মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর ছাত্র রাজনীতিতে অনুকূল পরিবেশ এসেছে। সুস’ ছাত্র রাজনীতির ধারাকে অব্যাহত রাখতে এ সুযোগকে কাজে লাগাতে হবে। তারা বলেন আমরা জোটের মধ্যে থাকবো তবে ছাত্র রাজনীতির ২৩ দফা আন্দোলন কে বেগবান করব। দেশে মৌলবাদকে নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে পাকিস্তানের মত ভয়াবহ অবস’ার শিকার হবে বাংলাদেশ। কাজেই যুদ্ধাপরাধের বিচারের মাধ্যমেই এ দেশ থেকে মৌলবাদের জড় উৎপাটন করা সম্ভব। বক্তারা বলেন, ছাত্র রাজনীতিতে আগামির সুন্দর শিক্ষার পরিবেশের স্বপ্ন দেখতে হবে। ছাত্রমৈত্রীকে আরো গতিশীল করতে হবে। আর এ জন্য ছাত্রমৈত্রীর আদর্শ নিয়েই কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে হবে।

পাতাটি ২৭৫ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন