logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo ৪ দলীয় জোটসহ সমমনা দলগুলোর সাথে খালেদা জিয়ার বৈঠক
বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সভাপতিত্বে গতকাল বুধবার রাতে গুলশান দলীয় কার্যালয়ে ৪ দলীয় জোটসহ সমমনা ১৩টি দলের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাত ৯টা থেকে ১১টা ২০ মিনিট পর্যন্ত একটানা অনুষ্ঠিত সভায় বিএনপি মহাসচিব খন্দকার দেলোয়ার হোসেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর মকবুল আহমদ, ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম আজহারুল ইসলাম, নির্বাহী পরিষদ সদস্য ডা. আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ তাহের, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মুফতি ফজলুল হক আমিনী, মহাসচিব মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ এমপি, মহাসচিব শামীম আল মামুন, খেলাফত মজলিসের আমীর মাওলানা ইসহাক, জাগপার সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান শেখ শওকত হোসেন নিলু, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোর্ত্তজা, বাংলাদেশ লেবার পার্টির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, ইসলামিক পার্টির সভাপতি এডভোকেট আব্দুল মবিন, বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান, জেবেল রহমান গানি, ন্যাপ-ভাসানীর সভাপতি শেখ আনোয়ারুল হক প্রমুখ।
সভা শেষে বিএনপি মহাসচিব সাংবাদিকদের কাছে এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, সরকারের সংবিধান সংশোধনী কমিটি গঠন দুরভিসন্ধিমূলক। তাদের ব্যর্থতা ঢাকতে জনগণের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে নিতে তারা একেক সময় একেক ইস্যু সামনে আনছে। আমাদের আশঙ্কা তারা এ কমিটি গঠন করেছে আগামীতে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা তুলে দিয়ে প্রহসনমূলক নির্বাচন দিয়ে তারা আবার ক্ষমতায় যেতে চায়। এ জন্য আমাদের সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের কোন বিকল্প নেই। তিনি বলেন, বর্তমানে সরকারের অত্যাচার, নির্যাতন ও নিপিড়নের মাত্রা ৭২/৭৫ আমলকেও হার মানিয়েছে। নাগরিকদের বেঁচে থাকার অধিকার কেড়ে নিয়েছে। এজন্য বিএনপি চেয়ারপার্সন এ পরিস্থিতি মোকাবিলায় সমমনা দলগুলোর সাথে মতবিনিময়ের জন্য ডেকেছিলেন। তারা আন্দোলনের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন, সর্বাত্মক সহযোগিতারও আশ্বাস দিয়েছেন তারা। জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম আজহারুল ইসলাম বলেন, সরকার যত গণবিরোধী ভূমিকায় যাবে আন্দোলন ততই তীব্র হবে। তিনি বলেন, সরকার পঞ্চম সংশোধনী বাতিল, সংবিধান সংশোধনীর নামে ধর্মহীনতা ও একদলীয় শাসনের দিকে যাচ্ছে। এজন্য ভবিষ্যতে যাতে আন্দোলন করা যায় সে ব্যাপারে আলোচনা করেছি। ৪ দলীয় জোট ভাঙ্গেনি, জোট আছে, সময়ের প্রেক্ষিতে বৈঠক করা হয়। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সম্মিলিত আন্দোলনের ব্যাপারে প্রয়োজনে পরে বসে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তিনি বলেন জামায়াতের আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী, সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদসহ সাড়ে তিন হাজার নেতা-কর্মী গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে বিএনপি বিবৃতি দেয়ায় আমরা সন্তোষ প্রকাশ করেছি।

পাতাটি ৩০১ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন