logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo পুলিশের বাধায় বিএনপি মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করতে পারেনি
গতকাল মহানগর বিএনপি’র নেতাকর্মীরা কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে ব্যানার নিয়ে সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে মানববন্ধন কর্মসূচি শুরু করলে কয়েক মিনিটের মধ্যে বিএনপির ওই কর্মসূচিতে বাধা দেয় পুলিশ। পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে মানব বন্ধন কর্মসূচি পালন করতে চাইলে বাক-বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন বিএনপি নেতৃবৃন্দ। পরে মানব বন্ধন করতে না পেরে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল করে নেতাকর্মীরা। বিক্ষোভ মিছিলটি শহর প্রদক্ষিণ করে ভুবন মোহন পার্কে এসে শেষ হয়। পরে একটি সংক্ষিপ্ত সভার আয়োজন করা হয়।

অপর দিকে বিকেলে জেলা বিএনপি ও কেন্দ্রিয় ঘোষিত মানববন্ধন কর্মসূচি জিরো পয়েন্ট এলাকায় পালন করতে চাইলে পুলিশ তাদেরও বাধা দেয় মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করতে।

গতকাল বুধবার মহানগর বিএনপি সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে মানব বন্ধন কর্মসূচি পালন করে মানববন্ধন চলাকালে পুলিশ তাদের কর্মসূচিতে বাধা দেয়। এ নিয়ে পুলিশের সাথে বাক-বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন নেতৃবৃন্দ। পরে পুলিশের জোর বাধার মুখে তার কর্মসূচি শেষ করে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। বিক্ষোভ মিছিলটি ভূবনমোহন পার্কে এসে শেষ হয়। বিক্ষোভ শেষে সভায় মানববন্ধন কর্মসূচি চলাকালে পুলিশের অগণতান্ত্রিক আচরণের প্রতিবাদ জানান হয়। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, আমরা শহীদ জিয়ার আদর্শের সৈনিক আমরা আন্দোলন করতে জানি। ৯০ এ আপোসহীন আন্দোলনের মাধ্যমে স্বৈরাচার এরশাদের পতন ঘটানো হয়েছে। ২০০০ সালে যুগপৎ আন্দোলনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকারের পতন ঘটানো হয়েছিলো। আন্দোলন কিভাবে করতে হয় বিএনপি তা জানে।

তারা বলেন, বিরোধী দলের নেতাকর্মীর উপর হামলা-মামলা গ্রেপ্তার নির্যাতন করে বিরোধী দল বিএনপিকে দমন করা যাবে না।

মানব বন্ধন কর্মসূচি ও বিক্ষোভ শেষে সভায় অংশগ্রহণ করেন, কেন্দ্রিয় নির্বাহী কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মহানগর বিএনপি’র সভাপতি সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু, মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক অ্যাড: শফিকুল হক মিলন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক এমপি আজিজুর রহমান, মহানগর যুবদলের সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, মহিলা দল নেত্রী শহিদুন নাহার কাজী হেনা, মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি নজরুল হুদা, ১ম যুগ্ম সম্পাদক ও বোয়ালিয়া থানা সভাপতি সাইদুর রহমান পিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান বাবু,কোষাধ্যক্ষ আজিজুর রহমান বাচ্চু, প্রচার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শাফিক, সহ-সভাপতি সেলিম আহমেদ চুনি, আলী হায়দার রানা,শফিউল আলম বুলু, শওকত আলী, ফজলে এলাহী বাবন, তোফাজ্জল হোসেন তপু, সমীর কুমার রবি, ফারুক হোসেন, মো: মাসুদ আলী হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল মতিন, রেজাউল করিম, মনিরুজ্জামান শরীফ, মনিরুল ইসলাম জালু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, সেলিম আক্তার বুলবুল, যুব বিষয়ক সহ-সম্পাদক ওলিউল হক রানা, ছাত্রদল সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সুইট, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান রিটন সহ প্রায় শতাধিক নেতাকর্মী। এদিকে গতকাল বিকেলে জেলা বিএনপি কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করার জন্য জিরো পয়েন্ট এলাকায় নেতা কর্মীরা উপস্থিত হয়।

এ সময় পুলিশ জেলা বিএনপি’র মানব বন্ধন কর্মসূচিতে বাধা দেয়। পরে তারা একটি মিছিল নিয়ে জিরো পয়েন্ট এলাকা ছেড়ে চলে যায়। এ সময় জেলা বিএনপি’র নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড: কামরুল মনির, কেন্দ্রিয় সদস্য সৈয়দ শাহিন শওকত, মতিয়ার রহমান মন্টু, যুগ্ম সম্পাদক মামুন উর রশিদ আলাউদ্দিন আহমেদ, দপ্তর সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মামুন, মোখলেসুর রহমান, অধ্যাপক আব্দুস সামাদ, ইসাহাক, সাইফুল ইসলাম, আলাউদ্দিন আলো, সেলিম রেজা, আব্দুল্লাহ আল মামুন, আলী হোসেন, আ: রাজ্জাক, যুবনেতা মাজেদুর রহমান মার্কনী, তারিক হাসান রানা, ছাত্রনেতা জুলফিকার আলী, শফিকুল আলম সমাপ্ত, নুসরাত এলাহী রিজভী প্রমুখ। পরে জেলা বিএনপির মিছিলটি ভূবনমোহন পার্কে উপস্থিত হয়ে সমাবেশের আয়োজন করে। সমাবেশে মানববন্ধন কর্মসূচিতে পুলিশের বাধার তিব্র নিন্দা জানানো হয়।

পাতাটি ৩১১ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন