logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo মন্দা কাটাতে এশিয়াই অগ্রগামী

এশিয়ার উন্নয়নশীল দেশগুলোতে চলতি বছর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জিত হতে পারে ৪ দশমিক ৫ শতাংশ। ২০১০ সালের প্রথম দিকে প্রবৃদ্ধি অর্জনের হার হতে পারে ৬ দশমিক ৬। এমনকি ঐ বছরের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর মাস পর্যনত্ম তিন মাসে এ হার আরো বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক গতকাল মঙ্গলবার এ ভবিষ্যদ্বাণী করেছে।

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) প্রধান অর্থনীতিবিদ জংওয়াহ লি এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলেন, আগামী সেপ্টেম্বরে প্রবৃদ্ধি অর্জনের হার ৩ দশমিক ৯ থেকে ৬ দশমিক ৪ শতাংশ পর্যনত্ম বৃদ্ধি পেতে পারে। এডিবি’র সংশোধিত ভবিষ্যদ্বাণীতে এ আশা ব্যক্ত করা হয়েছে। তিনি বলেন, এশীয় অঞ্চলে সর্বশেষ সমীড়্গা চালানোর সময় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনের যে প্রত্যাশা করা হয়েছিল আগামী সেপ্টেম্বরে তা আরো আশাব্যঞ্জক হতে পারে। ইতিমধ্যে ইউরোপ, জাপান ও যুক্তরাষ্ট্রে অর্থনৈতিক ড়্গেত্রে মাঝারি ধরনের উন্নয়ন হয়েছে বলে তিনি মনত্মব্য করেন। যার ফলে ঐসব অঞ্চলের মন্দাভাব ধীরে-ধীরে কেটে যাচ্ছে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন তিনি। তবে চীনের বেলায় পূর্বে করা ভবিষ্যদ্বাণী অবশ্য অপরিবর্তিত থাকছে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে চীনের প্রবৃদ্ধি অর্জনের ভবিষ্যদ্বাণী ছিল ৮ দশমিক ২ শতাংশ। আগামী বছরের ভবিষ্যদ্বাণী ৮ দশমিক ৯ শতাংশ।

জংওয়াহ লি বলেন, আগামী বছর চীনের প্রবৃদ্ধি অর্জনের অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে। অবশ্য বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক ব্যবস্থার সাফল্য ব্যর্থতার ওপর নির্ভর করছে প্রবৃদ্ধি অর্জনের ওঠা-নামা। তিনি বলেন, জিত অর্থাৎ ইউরোপ, জাপান ও যুক্তরাষ্ট্র ধীরে-ধীরে মন্দাভাব কাটিয়ে উঠছে। তবে তাদের জন্য ঝুঁকি এখনও রয়েছে। আশার কথা বিশ্ব মন্দার কবল থেকে উঠে আসার প্রতিযোগিতায় এশিয়ার দেশগুলোই অগ্রগামী। তবে আগামী বছর অর্থাৎ ২০১০ সালে এ ধারা অব্যাহত থাকবে কিনা সেটাই প্রশ্ন। তিনি বলেন, সংশিস্নষ্ট সরকারগুলোকে প্রণোদনা প্যাকেজ অব্যাহত রেখে অর্থনৈতিক মন্দা কাটিয়ে ওঠার ধারাকে অবশ্যই ধরে রাখতে হবে।

পাতাটি ৪৩০ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন