logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo শেখ হাসিনার মিথ্যা প্রতিশ্রুতির প্রমাণ করল বিএনপি
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের নির্বাচনের আগে ১০ টাকা কেজি চাল, বিনামূল্যে সার সরবরাহ, ঘরে ঘরে চাকরি এবং ডিগ্রি পর্যন্ত ছেলেমেয়েদের অবৈতনিক শিক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কিনা, তার দালিলিক প্রমাণ উপস্থাপন করেছে বিএনপি। গতকাল পল্টনে অনুষ্ঠিত ঢাকা বিভাগীয় মহাসমাবেশে বড় স্ক্রিনের মাধ্যমে এই প্রমাণ উপস্থাপন পরিচালনা করেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান।
বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আ স ম হান্নান শাহ’র বক্তব্যের পর ঘোষক সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন সমাবেশের উদ্দেশে বলেন, ‘ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করুন। এখন একটি ঘটনা ঘটবে।’ মহাসমাবেশে উপস্থিত সবাই অধির আগ্রহে অপেক্ষা করতে থাকেন কী ঘটে তা দেখতে। এ সময় মঞ্চে এসে মারুফ কামাল খান সমাবেশের উদ্দেশে প্রশ্ন ছুড়ে দেন, এখন মোটা চালের সর্বনিম্ন দাম কত? সমাবেশ উত্তর দেয়, ৩০ টাকা। সোহেল : নির্বাচনের আগে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী কত টাকায় চাল দেয়ার কথা বলেছিল।
সমাবেশ : ১০ টাকা।
সোহেল : কিন্তু তারা তাদের প্রতিশ্রুতির কথা অস্বীকার করছে। তাহলে পর্দায় দেখুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কিনা।
এ সময় মঞ্চের পাশে স্থাপিত বড় স্ক্রিনে নির্বাচনের আগের এক জনসভায় শেখ হাসিনার বক্তব্য দেখানো হয়। এতে তিনি বলেন, ‘নৌকায় ভোট দেব/১০ টাকা কেজি চাল খাব।’ স্ক্রিনে জনসভায় শেখ হাসিনার বক্তব্য শুনে সমাবেশে উপস্থিত সবাই হৈ হৈ করে ওঠে। এমন সময় মারুফ কামাল খান জানতে চান, যিনি কথা দিয়ে কথা রাখেননি, তাকে কী বলা হয়? সমাবেশ থেকে সমস্বরে উত্তর আসে, বিশ্বাসঘাতক।
এভাবে নির্বাচনের আগে শেখ হাসিনা যে দেশের বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠিত জনসভায় বিনামূল্যে সার সরবরাহ, ঘরে ঘরে চাকরি এবং ডিগ্রি পর্যন্ত ছেলেমেয়েদের অবৈতনিক শিক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তা স্ক্রিনে দেখানো হয়।
শেষে মারুফ কামাল খান বলেন, ‘এখন প্রধানমন্ত্রীসহ আওয়ামী লীগ নেতারা সেসব প্রতিশ্রুতির কথা বেমালুম অস্বীকার করছেন। এরা তাই প্রবঞ্চক, প্রতারক ও বিশ্বাসঘাতক।’ এ সময় সমাবেশে উপস্থিত সবাই সমস্বরে বলে ওঠেন, ‘হ্যাঁ, হ্যাঁ, হ্যাঁ’।

পাতাটি ২৯৫ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন