logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo সাকার বিরুদ্ধে মুদ্রাপাচারের অভিযোগে মামলা
বিএনপি নেতা সাংসদ সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর বিরুদ্ধে মুদ্রাপাচারের অভিযোগে একটি মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বৃহস্পতিবার বিকালে ধানমণ্ডি থানায় দুদকের সহকারী পরিচালক তৌফিকুল ইসলাম মামলাটি দায়ের করেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ধানমণ্ডি থানার ওসি শাহ আলম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং আইনে অভিযোগ আনা হয়েছে।

"সেখানে বলা হয়েছে, ২০০৫ সালের ৫ সেপ্টেম্বর তিনি হংকং থেকে ব্রিটেনে ২ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার ও ১ লাখ হংকং ডলার পাঠালেও দুদকের কাছে সম্পত্তির বিবরণীতে তা গোপন করেছেন। এছাড়া এ অর্থ দিয়ে তিনি একটি ওষুধ কম্পানি (গ্লোবাল বেক্সিমকো ফার্মা ইউকে)'র শেয়ার কেনেন। এেে ত্র তিনি নিয়ম ভেঙেছেন।"

এর আগে ২০০৭ সালের ১৩ জুন সম্পত্তির তথ্য গোপন ও জানা আয়ের উৎস বহির্ভূত সম্পত্তি অর্জনের অভিযোগে সালাউদ্দিন কাদেরের বিরুদ্ধে রমনা থানায় মামলা দায়ের করেছিল দুদক।

ওই মামলায় অভিযোগ করা হয়েছিল, সাকা চৌধুরী অবৈধভাবে ৯ কোটি, ৪৫ লাখ ৫২ হাজার ৬৩২ টাকার সম্পত্তি অর্জন করেছেন। একই সঙ্গে এক কোটি ১৭ লাখ ৪৭ হাজার ১৪০ টাকার সম্পত্তির তথ্য গোপন করেছেন।

মামলাটি বর্তমানে উচ্চ আদালতের নির্দেশে স্থগিত রয়েছে।

তত্ত্বাবধায়ক সরকার মতায় আসার পর ২০০৭ সালের ১৮ ফেব্র"য়ারি দুর্নীতি দমন কমিশন দেশের ৫০ জন রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী, আমলা ও অন্যান্যদের তালিকা প্রকাশ করে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে স্ত্রী সন্তানসহ স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির হিসাব জমা দিতে বলে। ওই তালিকায় সালাউদ্দিন কাদেরের নামও ছিল।

তাকে ওই বছরের ৩ ফেব্র"য়ারি গ্রেপ্তার করে যৌথবাহিনী। ২০০৮ সালের ৫ সেপ্টেম্বর কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি। ওই বছরের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী হিসেবে চট্টগ্রামের দুটি আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে একটিতে জয়ী হন তিনি।

তার বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের সময় চট্টগ্রামের কুণ্ডেশ্বরী ঔষধালয়ের মালিক নতুন চন্দ্র সিংহকে হত্যার অভিযোগসহ দখলদার পাকিস্তানি বাহিনীকে সহায়তার অভিযোগ রয়েছে।

পাতাটি ২৮২ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন