logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo টেন্ডার নিয়ে ছাত্রলীগ ও যুব লীগের নেতাদের সাথে আওয়ামী নেতাদের বিরোধ
দিনাজপুর এলজিইডির প্রায় ৮ কোটি টাকার টেন্ডার ভাগাভাগি নিয়ে ঠিকাদার পরিচয়ধারী নেতাদের মধ্যে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে। এক ঠিকাদারের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে হামলাও করা হয়েছে।

দিনাজপুর এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী কার্যালয় সূত্রে প্রকাশ, গত ১৪ ডিসেম্বর সোমবার দ্বিতীয় গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের অধীনে চিরিরবন্দর উপজেলার আউলিয়াপুকুর ইউনিয়নের প্রায় ৪ কিলোমিটার রাস্তা নির্মানের টেন্ডার দাখিলের শেষ দিনে ঠিকাদার পরিচয়ে নেতারা বিরোধে জড়িয়ে পড়ে। জানা যায় ৩টি গ্রুপে প্রায় ৮ কোটি টাকার টেন্ডারের জন্য ১২০টি সিডিউল বিক্রি হলেও ২ কোটি টাকার এ ও বি- গ্রুপে ৫টি করে এবং সি গ্রুপে ২টি সিডিউল জমা দেয়া হয়। এলজিইডির উক্ত টেন্ডারের কাজ ভাগাভাগি করা নিয়ে প্রভাশালী কয়েকজন ঠিকাদার ও নেতা-কর্মীদের মধ্যে আপোষ রফাদফা হয়। কিন্তু জেলা যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতারা উক্ত আপোষ রফাকে উপেক্ষা করে টেন্ডার দাখিল করায় প্রতিদ্বন্দ্বি গ্রুপের সমর্থকেরা শহরের জেল রোডের ঠিকাদার এহেতেসামুল হকের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়।

মঙ্গলবার এ হামলার কারণে শহরে উত্তেজনা ও আতঙ্ক বিরাজ করলে তাৎক্ষনিকভাবে পুলিশ মোতায়েন করে পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়া হয়। জানা যায়, এহেতাসামের ঠিকাদারী লাইসেন্স ব্যবহার করে ছাত্রলীগের নেতারা উক্ত কাজের সিডিউল দাখিল করে।

এলজিইডি সূত্রে জানা যায়, এ গ্রুপে ৫টি সিডিউল দাখিলকারীগণ হচ্ছেন কৃষি মেশিনারীজের হারুন উর রশীদ, বগুড়ার শাপলা রাইস মিল, জেভি অব সাইফুল ইসলাম ও এহেতেসামুল হক। বি গ্রুপের দাখিলকৃত টেন্ডার দাতারা হচ্ছেন নাজির হোসেন, রফিকুল ইসলাম সোনা, নুরুল ইসলাম, কুড়িগ্রামের বসুন্ধরা ও লালমনিরহাটের আমির হামজা। সি গ্রুপের দাখিলকৃত দুজন টেন্ডার দাতা হলেন রফিকুল ইসলাম সোনা ও নাজির হোসেন।

প্রায় ৮ কোটি টাকার টেন্ডার ভাগা ভাগি নিয়ে সরকার দলীয় নেতা-কর্মীদের মধ্যে তীব্র অসন্তোষ বিরাজ করছে। জানা যায়, বিগত বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে সুবিধাভোগী ঠিকাদারদের লাইসেন্স ব্যবহার করে নেতা-কর্মীরা বিভিন্ন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানে টেন্ডার ভাগাভাগি করে নিচ্ছেন।

গত সোমবারের এলজিইডির এ টেন্ডারকে কেন্দ্র করে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে সৃষ্ট বিরোধ সম্পর্কে এবং টেন্ডার দাখিলে বাঁধা দান সম্পর্কে এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মখলেসুর রহমান কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি এ ব্যাপারে কিছু জানেন না বলে জানান।

পাতাটি ৩১৮ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন