logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo সেনাবাহিনীর সাবেক করপোরাল এখন ডাকাত
রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানা পুলিশ গতকাল বুধবার দিনভর অভিযান চালিয়ে সেনাবাহিনীর সাবেক এক করপোরালসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশের ভাষ্য মতে, এরা আন্তজেলা ডাকাতদলের সদস্য।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো সেনাবাহিনীর সাবেক করপোরাল শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের কবির হোসেন, বরিশালের মুলাদি উপজেলার উত্তর পাতারচর গ্রামের ইউসুফ, রাজশাহীর পুঠিয়ার পিরগাছা ছোট কাঁচুপাড়া গ্রামের রায়হান ও রাতুয়াল গ্রামের আজাদ। এদের কাছ থেকে তিনটি মোবাইল, ক্রেডিট কার্ড ও কিছু নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

রাজশাপাড়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) কামরুজ্জামান জানান, কবির ও ইউসুফকে মহানগরীর হেতেম খাঁ এলাকা থেকে এবং বাকি দুজনকে পুঠিয়া থানা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি জানান, গত ১২ ফেব্রুয়ারি নগরীর তেরখাদিয়া এলাকায় সোহেলের বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়। এ ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার তদন্ত করতে গিয়ে তিনি কবির ও ইউসুফের জড়িত থাকার কথা জানতে পারেন।

পরে আরো তদন্তের পর তারা রাজশাহী মহানগরীতে অবস্থান করছে বলে নিশ্চিত হওয়া যায়। গতকাল সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হেতেম খাঁ এলাকায় একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী দুপুরে পুঠিয়া থেকে রায়হান ও আজাদকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের রাজপাড়া থানায় জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আজ বৃহস্পতিবার তাদের আদালতে পাঠিয়ে রিমান্ড আবেদন করা হবে।

এসআই কামরুজ্জামান জানান, কবির হোসেন সেনাবাহিনীর সাবেক করপোরাল। ২০০৮ সালে টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে কর্মরত অবস্থায় অসাদাচরণের জন্য তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়। এরপর সে এই কাজে জড়িয়ে পড়ে। রাজশাহীসহ আশপাশের এলাকায় ডাকাতির সঙ্গে তার জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

সে ওই জায়গায় ভাড়া থাকত। আর ইউসুফ তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী। এসআই আরো জানান, কবির হোসেন গত ১ ফেব্রুয়ারি হেতেম খাঁ এলাকায় বাসা ভাড়া নেয়। এর আগে সে সাগরপাড়া এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে থাকত। পুঠিয়ার বাসুপাড়া এলাকায় দ্বিতীয় বিয়ে করে সেখানেও বসবাস করত সে।

পাতাটি ২৮২ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন