logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo শিবিরের বিরুদ্ধে ‘চিরুনি অভিযান’ চলছে
গত ৮ ফেব্রুয়ারি রাতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রশিবিরের সন্ত্রাসীদের হাতে ছাত্রলীগ নেতা ফারুক হোসেন নিহত হওয়ার পর সারাদেশে জামায়াত-শিবির ক্যাডারদের ধরতে পুলিশ চিরুনি অভিযান শুরু করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উত্তরা ও শাহবাগ থানা পুলিশ বিভিন্ন ছাত্রাবাস ও মেসে অভিযান চালিয়ে ৫২ জনকে গ্রেপ্তার করে। এ সময় তাদের দখল থেকে বিপুল জেহাদি বই ও সরকার বিরোধী পোস্টার উদ্ধার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে সংশিস্নষ্ট থানাগুলোতে রাষ্ট্রদ্রোহী ও সন্ত্রাসবিরোধী আইনে পৃথক দুটি করে মামলা করা হতে পারে। গতকাল চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, টাঙ্গাইল ও বরিশালে দেড় শতাধিক জামায়াত ও শিবির নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগর জামায়াতের নায়েবে আমিরসহ ৯৮ জন, সিলেটে ১৮ জন, টাঙ্গাইলে ১৪ জন, রাজশাহীতে ২৯ জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৭ জন, বরিশালে ৩ জন ও নওগাঁয় একজন রয়েছে। খবর আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রতিনিধি, বিডিনিউজ ও শীর্ষ নিউজের।

রাজধানীর শাহবাগ থানা সূত্রে জানা যায়, গতকাল মধ্যরাতে শিবিরের বিশ্ববিদ্যালয়ের মেসে ৮/২/ক এবং ৯/২ নম্বর বাসায় অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকে সন্দেহভাজন ২১ জনকে তারা আটক করে। এ ব্যাপারে শাহবাগ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রেজাউল করিম বলেন, আমরা গ্রেফতারকৃতদেরকে পর্যবেক্ষণ করছি। জব্দ করা বই ও সিডিগুলো খতিয়ে দেখা হচ্ছে । সন্দেহজনক কিছু পাওয়া গেলে পরবর্তীতে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গ্রেফতারকৃত শিবির নেতাকর্মীরা হলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রচার সম্পাদক মহব্বত আলী, অর্থ সম্পাদক আবুল কাশেম, প্রকাশনা সম্পাদক জালাল উদ্দিন, হাফিজুর রহমান (ইসলামিক স্টাডিজ ৩য় বর্ষ), হাবিব (রাষ্টবিজ্ঞান মাস্টার্স), মঈন উদ্দিন (ইংরেজি ১ম বর্ষ), কবির (ফলিত রসায়ন বিভাগ), ইনসান (সমাজবিজ্ঞান বিভাগ), আতিকুল ইসলাম (সমাজবিজ্ঞান), মুনতাসীর মামুন (সমাজবিজ্ঞান), এহতেসামুল হক (বায়ো কেমিষ্ট্রি), আমিনুল ইসলাম (প্রাণিবিদ্যা), ইব্রাহীম খলিল (আরবি), মাসুদ রানা (উইমেন অ্যান্ড জেন্ডার স্টাডিজ), নাঈমুল ইসলাম (গণিত), সাখাওয়াত (অনুজীব ও প্রাণ রসায়ন), হাদিয়ার রহমান (প্রাণিবিদ্যা), শফিউলস্নাহ খান (লোকপ্রশাসন), আব্দুল গফুর (গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ), সাব্বির (ঢাকা কলেজ), আলমগীর (আইবিআইটি)।

উত্তরা থানা পুলিশ বলেছে, উত্তরার ১৪ নম্বর সেক্টরের ১৮ নম্বর রোডের ৪৫ নম্বর বাড়ির চতুর্থ তলার একটি মেসে তারা ছাত্রশিবিরের উত্তরা শাখা কার্যালয় হিসেবে ব্যবহার করে আসছিল। উত্তরা রাজউক মডেল কলেজের ছাত্ররা থাকবে বলে এ মেস ভাড়া নেয় তারা। পুলিশের কাছে তথ্য ছিল শিবির কর্মীরা ওই বাসায় অবস্থান করে সরকার বিরোধী প্রচার চালাচ্ছে। এছাড়াও তারা দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সহিংস ঘটনার নেতৃত্ব উত্তরার ওই বাড়ি থেকে দিয়ে আসছে। ওই খবরের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে শিবির কর্মী ইমরান, মুজাহিদুল, নুরুজ্জামান, আমিনুল, ফাহিম মুনতাসির হোসেন আহমেদ, আরিফুজ্জামান ফরহাদ, ফিরোজ আহমেদ, আব্দুলস্নাহসহ অর্ধশত শিবির কর্মীকে আটক করে। এ সময় তাদের দখল থেকে বিপুল পরিমাণ জেহাদি বই ও পোস্টার উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ৩১ জনকে গতকাল আদালতে পাঠানো হয়। বাকিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ না পাওয়ায় তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়। আটককৃতদের মধ্যে অধিকাংশই উত্তরা রাজউক মডেল কলেজের ছাত্র।

এ ব্যাপারে উত্তরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খন্দকার রেজাউল হাসান জানান, যাচাই-বাছাইয়ের পর আটকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রোদ্রোহী ও সন্ত্রাস বিরোধী আইনে অভিযোগ আনা হচ্ছে।

এদিকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মাসুম হত্যার জের ধরে চট্টগ্রাম মহানগরীতে পুলিশের সঙ্গে জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীদের ব্যাপক সংঘর্ষ চলাকালে মহানগর জামায়াতের নায়েবে আমির আহসান উলস্নাহসহ ৫০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া নগরজুড়ে সাঁড়াশি অভিযান চলাকালে আরো ৪৮ শিবিরকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়। সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ কর্মী মারুফ হোসেন নিহত হওয়ার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে নওগাঁ সদর উপজেলার শৈলগাছি গ্রাম থেকে শিবিরকর্মী আব্দুলস্নাহ আল মারুফ নামে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রকে গ্রেফতার করে নওগাঁর গোয়েন্দা পুলিশ। পুলিশ জানায়, সে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। গতকাল সন্ধ্যায় শৈলগাছি গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এদিকে ছাত্রশিবির কর্মী গ্রেফতারে নওগাঁয় পুলিশের চিরুনি অভিযান শুরু হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মফিজুর রহমান, আতিকুর রহমান, ছাত্র মো. রোমান, মাহমুদুল হাসান, মনিরুল ইসলাম, মুকিত সরকার এবং মোহামুদুল ইসলাম।

পাতাটি ৩১০ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন