logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo রাজশাহী নগরীতে উন্মুক্ত রেলগেট

রাজশাহী নগরী ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় অবস্থিত রেলগেটগুলোর অধিকাংশই চরম নিরাপত্তাহীন অবস্থায় রয়েছে। এগুলোতে না আছে কোনো গেট, না আছে প্রহরার ব্যবস্থা আর না আছে সতর্কতার জন্য কোনো সিগন্যাল। ফলে মারাত্মক দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে সব সময় এগুলো উন্মুক্তই থাকে। রাজশাহী নগরীর বহরমপুরের একটি গেটে দুই তরম্নণ মোটরসাইকেল আরোহী রেললাইন পার হতে গিয়ে ট্রেনের ধাক্কায় মর্মানিত্মকভাবে নিহত হয়। এর পরও রেল কিংবা নগর কর্তৃপড়্গের কোনো মাথাব্যথা নেই। বরং কিছু কিছু গেটকে অফিসিয়ালি স্বীকার করা হয় না। ফলে এগুলোর কোনো তদারকিও নেই। রেল কর্তৃপড়্গের মতে, এগুলো দেখার দায়িত্ব সিটি করপোরেশনের। কয়েকটি উন্মুক্ত গেটে পাহারাদার থাকলেও তাদের ভাতা দেবার কথা সিটি করপোরেশনের। কিন্তু বহুদিন ধরে তাদের ভাতা দেয়া হয় না।

রেল কর্তৃপড়্গ এ ব্যাপারে কয়েকবার তাগাদাপত্রও দিয়েছেন বলে জানা গেছে। নগর এলাকায় রেল কর্তৃপড়্গের অনুমোদিত গেট রয়েছে ৮টি। এগুলোতে গেট ও প্রহরী রয়েছে। বাকি অনত্মত ৫টি স্থানে অননুমোদিত গেট রয়েছে। এগুলোতে পথচারী ও হালকা পরিবহন পারাপার হয় ঝুঁকি নিয়ে। পেছনে ট্রেন দেখে দৌড়ে লাইন পার হওয়াটা খুবই সাধারণ ব্যাপার। এতে প্রায়শই ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। কোনো সময় মর্মানিত্মক ড়্গতির অপেড়্গায় থাকে এসব উন্মুক্ত গেট। আমরা আশা করবো এই গুরম্নত্বপূর্ণ বিষয়টি দ্রম্নত সমাধানে রাজশাহীর মেয়র মহোদয় কার্যকর ব্যবস্থা নেবেন।

পাতাটি ৩৪০ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন