logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo ঘনিয়ে আসছে নির্বাচনী দিনক্ষন/ উত্তাপ বাড়ছে সমর্থকদের
রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন বাকী রয়েছে আর মাত্র ৪ দিন। পুরো নগরী জুড়ে বিরাজ করছে নির্বাচনী আমেজ। আর নির্বাচনের দিন ক্ষন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই নির্বাচনী আচরন বিধি লংঘনের প্রবনতা দেখা দিচ্ছে। ভ্রাম্যমান আদালত জরিমানাও করছেন প্রার্থীদের। নগরীর বিভ্‌ন্িন এলাকায় নির্বাচনী জনসংযোগে কোন শ্লোগান দেয়া যাবে না এমন বিধান থাকলেও তা মানছে না সমর্থকরা। দেখা গেছে অনেক সময় জনসংযোগে শ্লোগান দেয়া হচ্ছে। দিন ক্ষন যতই ঘনিয়ে আসছে কর্মী সমর্থকদের মধ্যে ততই যেন বৃদ্ধি পাচ্ছে উত্তাপ উত্তেজনা। প্রার্থীদের ডিজিটাল ব্যানার ছেঁড়ার পাল্টাপাল্টি অভিযোগও রয়েছে। আচরন বিধি লংঘনের জন্য সর্তক করে পত্রও দেয়া হয়েছে নির্বাচন অফিস থেকে। বর্তমানে যে অবস’া বিরাজ করছে তাতে করে সহিংসতা ঘটার আশংকা করছেন অনেকে। তবে সব ছাড়িয়ে ২০১৩ সালের নির্বাচনে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন পরিচালনার দায়িত্ব কে পাবেন নাগরিক কমিটি মনোনীত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন নাকি সম্মিলিত নাগরিক ফোরাম মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল এ নিয়ে আলোচনা এখন তুঙ্গে। আর নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্বে যারা আছেন তারা এক রকম ভুলেই গেছেন নাওয়া খাওয়া। দুই প্রার্থীর পাশাপাশি তাদের পত্নীরাও ছুটছেন ভোটারদের বাড়ী বাড়ী। আগামি ১৫ জুন ২ লাখ ৮৬ হাজার ৯১৭ জন ভোটার নির্ধারন করবেন কে দায়িত্ব নেবেন নগর পিতার। ভোটারদের মধ্যে ১ লাখ ৪৩ হাজার ৩৯৫ জন পুরুষ এবং নারী ১ লাখ ৪৩ হাজার ৫২২ জন। ২০০৮ সালের তুলনায় ২০১৩ সালে ভোটার বৃদ্ধি হয়েছে ২৮ হাজার ১৫৮ জন। ২০০৮ সালের নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল ২ লাখ ৫৮ হাজার ৭৫৯ জন। পুরুষ ভোটার ছিল ১ লাখ ২৯ হাজার ৫৪৭ জন এবং নারী ভোটার ছিল ১ লাখ ২৯ হাজার ২১২ জন।

পাতাটি ১৮৯ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন