logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo গড়ে উঠবে শিল্পকারখানা, কমবে বেকার মানুষের সংখ্যা উত্তরাঞ্চলে হবে বিশেষ অর্থনৈতিক জোন
দেশের অবহেলিত অঞ্চলগুলোকে ঘিরে গঠন হচ্ছে বিশেষ অর্থনৈতিক জোন। এতে প্রাধান্য পাবে দেশের সবচেয়ে অবহেলিত অঞ্চল হিসেবে চিহ্নিত উত্তরাঞ্চল। রাজশাহীসহ উত্তরের জেলাগুলোতে এই বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে উঠলে পাল্টে যাবে এ অঞ্চলের চেহারা। প্রতিটি জেলায় গড়ে উঠবে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ধরণের শিল্পকারখানা। এগুলোতে কর্মসংস্থান হবে এ অঞ্চলের হাজার হাজার মানুষের। কমবে বেকার মানুষের সংখ্যা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, ঢাকা, গাজীপুর, নারায়নগঞ্জ ও চট্টগ্রাম বাদে দেশের প্রায় সবগুলো জেলাকেই অবহেলিত অঞ্চল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। এই চারটি শহর শিল্পকারখানায় যেমন আধিক্য রয়েছে, তেমনি অর্থনৈতিকভাবেও সমৃদ্ধ। এগুলো বাদে দেশের প্রায় প্রতিটি বিভাগীয় ও জেলা শহর পিছিয়ে রয়েছে। বর্তমান সরকার এই বৈষম্য দুর করতে তাই নিয়েছে নতুন সিদ্ধান্ত। সমপ্রতি মন্ত্রণালয়ে পিছিয়ে পড়া অঞ্চলগুলোতে অর্থনৈতিক জোন তৈরির সিদ্ধান্ত নেয়। অর্থনৈতিক জোন সৃষ্টি করা হলে প্রতিটি জেলা শহরে শিল্পের প্রসার ঘটানো হবে। বিসিকের পাশাপাশি গড়ে তোলা হবে অর্থনৈতিক জোন নামের আলাদা শিল্পাঞ্চল। সেখানে নতুন উদ্যোক্তারা শিল্প-কারখানা স্থপনের জন্য প্লট বরাদ্দ পাবেন। গড়ে তোলা হবে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ধরণের শিল্প-কারখানা। ওইসব শিল্প-কারখানায় কাজের সুযোগ পাবেন অনেকেই। তাতে বেকারত্বের অবসান হবে এঅঞ্চলের অসংখ্য মানুষের।

বিশিষ্ট রেশম ব্যবসায়ী ও নাসিব জেলা সভাপতি লিয়াকত আলী জানান, রাজশাহী অঞ্চলের ব্যবসায়ী-দের দীর্ঘদিনের দাবি ছিলো বিসিকের পাশাপাশি আরেকটি শিল্প নগরী স্থাপনের। অর্থনৈতিক জোন তৈরি হলে ব্যবসায়ীদের দাবি পূরণ হবে। তিনি জানান, অনেক নতুন উদ্যোক্তা শিল্প-কারখানায় বিনিয়োগ করতে এখন আগ্রহী। কিন’ বিসিকে প্লট নেই। জায়গার অভাবে নতুন উদ্যো-ক্তারা প্লট না পেয়ে শিল্প-কারখানা স্থাপন করতে পারছিলেন না। অর্থনৈতিক জোন গঠন হলে এ সমস্যার সমাধান হবে। দ্বিতীয় শিল্প নগরী হিসেবে অর্থনৈতিক জোনে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প যেমন, গার্মেন্টস শিল্প, আম ও আলু শিল্প, কৃষি ভিত্তিক বিভিন্ন শিল্প-কারখানা গড়ে উঠবে। জন্য নগরীর খড়খড়ি, সিটি হাট অথবা টেক্সটাইল মিল সংলগ্ন এলাকাকে বেছে নেওয়া হতে পারে। তিনি আরো জানান, রাজশাহীতে দ্বিতীয় বিসিক গড়ে তোলার দাবি ছিলো ব্যবসায়ীদের দীর্ঘ দিনের। গত ১৯ আগস্ট রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত বিভাগীয় ব্যবসায়ী সম্মেলনে শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়-য়া বলেছেন, দ্বিতীয় বিসিক না করে অর্থনৈতিক জোন গঠন করা হবে।

রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি ও নাসিব জেলা সভাপতি লিয়াকত আলী বলেন, শিল্পের প্রসার ঘটিয়ে পিছিয়ে পড়া উত্তরাঞ্চলের উন্নয়নে অবিলম্বে অর্থনৈতিক জোন বাস্তবায়ন করতে হবে। তিনি আরো বলেন, শিল্পের বিকাশ ঘটাতে হলে প্রয়োজন শিল্পে গ্যাস সংযোগ। এখনো গৃহস্থালির কাজের জন্যই গ্যাস সংযোগ পাওয়া যায়নি। তিনি অবিলম্বে গৃহস্থালি কাজের পাশাপাশি শিল্পের জন্য গ্যাস সংযোগের দাবি জানান।

পাতাটি ৩৪৭ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন