logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo সুদূরপ্রসারী লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে জামায়াত-শিবির
গত নির্বাচনে ভরাডুবি এবং যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরুতে চাপে থাকলেও বাংলাদেশকে পূর্ণাঙ্গ ইসলামী রাষ্ট্রে পরিণত করার সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়েই এগোচ্ছে জামায়াতে ইসলামী- ওয়াশিংটনে এ মূল্যায়নই পাঠিয়েছে ঢাকার যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস, যা প্রকাশ করেছে উইকিলিকস।

দূতাবাসের শার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স নিকোলাস ডিন ২০১০ সালের ৩ জানুয়ারি ওয়াশিংটনে 'জামায়াতে ইসলামী: দ্য টরটয়েজ, নট দ্য হেয়ার' শিরোনামের তারবার্তাটি পাঠান। প্রায় দেড় লাখ নতুন কেবলের সঙ্গে এ বার্তাটিও গত ৩০ অগাস্ট প্রকাশ করেছে জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের সাড়াজাগানো ওয়েবসাইট উইকিলিকস।

মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী জামায়াতের শীর্ষস্থানীয় কয়েকজন নেতার সঙ্গে আলোচনা এবং দলটির মজলিশে সুরায় আলোচিত বিভিন্ন বিষয়ের ওপর ভিত্তি করেই এ মূল্যায়ন তৈরি করা হয়েছে।

তারবার্তায় বলা হয়, ২০০৮ সালের নির্বাচনে ভরাডুবি হলেও নিজেদের লক্ষ্য থেকে তারা বিচ্যুত হচ্ছে না জামায়াতে ইসলামীর নেতারা।

"আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসন বাড়ানোর মতো স্বল্প মেয়াদি লক্ষ্য নিয়ে জামায়াত চিন্তিত নয়। আমরা বাংলাদেশকে পরিপূর্ণ ইসলামী রাষ্ট্রে পরিণত করার লক্ষ্য নিয়েই এগোচ্ছি", যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের বলেন জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুর রাজ্জাক।

গত সংসদ নির্বাচনে মাত্র তিনটি আসনে জেতার পর ২০১০ সালের মাঝামাঝিতে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে গ্রেপ্তার হন জামায়াতের শীর্ষ দুজনসহ পাঁচ নেতা।

চারদলীয় জোটে থাকলেও জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুল কাদের মোল্লা (বর্তমানে অন্তরীণ) মনে করেন, তাদের একটি রাজনৈতিক আদর্শ আছে, যা অন্য দুটি প্রধান দলের (বিএনপি, আওয়ামী লীগ) নেই।

তিনি মার্কিন কর্মকর্তাদের বলেন, "বাংলাদেশের সমস্যাগুলো দূর হবে শুধু ইসলামী রাষ্ট্র বাস্তবায়নের মাধ্যমে।"

বিশ্বের অন্য কোনো দেশের 'জামায়াতে ইসলামী' নামের কোনো দলের সঙ্গে আর্থিক, রাজনৈতিক বা অন্য কোনো ধরনের সম্পর্ক নেই বলেও দাবি করেন কাদের মোল্লা।

তবে কাদের সম্পর্কে নিকোলাস ডিন মন্তব্য করেন- "পাকিস্তানের জামায়াতে ইসলামী সম্পর্কে তিনি ভালোই জ্ঞান রাখেন এবং তিনি দাবি করেন পাকিস্তানের দলটির সাবেক নেতা মাওলানা ফায়জুর রেহমানের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব আছে।"

১৯৪১ সালে অবিভক্ত ভারতে জামায়াতে ইসলামী নামের দলটি প্রতিষ্ঠা করেন সৈয়দ আবুল আলা মওদুদী। দেশ ভাগের পরে মওদুদী পাকিস্তানে চলে যান। আহমদিয়া স¤প্রদায়ের মানুষদের হত্যায় প্ররোচনা যোগানোয় পাকিস্তানে তার ফাঁসির আদেশও হয়েছিলো, তবে পরে বেঁচে যান তিনি।

মুক্তিযুদ্ধের পর সা¤প্রদায়িক দল হিসেবে জামায়াত নিষিদ্ধ হলেও জিয়াউর রহমানের সময়ে দেওয়া সুযোগ নিয়ে পুনরুজ্জীবিত হয় দলটি। আগে জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ নামে নিজেদের পরিচয় দিলেও অন্য দেশের কোনো শাখা দল কি না, তা নিয়ে বিতর্ক ওঠার পর তারা নাম বদলে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী করে।

কাদের মোল্লা মার্কিন কর্মকর্তাদের জানান, তাদের সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী ফোরাম মজলিসে শূরায় দেশের সাধারণ মানুষদের মধ্যে নিজেদের মতাদর্শ ছড়িয়ে দেওয়ার পন্থা নিয়ে বিভিন্ন জেলা থেকে আসা তৃণমূল নেতাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়।

জামায়াতে ইসলামী সুদূরপ্রসারী লক্ষ্য নিয়ে এগোলেও তাদের সমর্থিত ছাত্র সংগঠন ইসলামী ছাত্রশিবির স্বল্পমেয়াদি লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে বলে তারবার্তায় বলা হয়।

মার্কিন দূতাবাসের রাজনৈতিক কর্মকর্তার সঙ্গে আলোচনায় শিবির নেতারা অন্য ছাত্র সংগঠনের সঙ্গে তাদের বিভিন্ন সংঘর্ষের অসংখ্য ছবি বার বার দেখানোর চেষ্টা করে। তারা দাবি করেন, সারাদেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রশিবির নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। তবে শিবির নেতা-কর্মীর নির্যাতনের শিকার ছাত্রদের বিষয়ে নিশ্চুপ ছিলেন তারা।

শিবির নেতারা দাবি করেন, তাদের তহবিলের একমাত্র উৎস বর্তমান ও সাবেক সদস্যদের দেওয়া চাঁদা। কিন্তু নিকোলাস ডিন মনে করেন, মগবাজারের মতো জায়গায় শিবিরের প্রধান কার্যালয় এ দাবির অসারতা প্রমাণ করে। বিএনপি ও আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠনের মতো শিবিরও চাঁদাবাজি করে।

জামায়াত ও শিবির নেতাদের সঙ্গে আলোচনার পর মার্কিন এ কূটনীতিক বলেন, তারা নিজেদের যতই গণতান্ত্রিক দাবি করুক না কেন, সব সিদ্ধান্ত আসে ওপরের স্তর থেকে।

পাতাটি ২৯৫ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন