logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo স্বাস্থ্যকর নগরী গড়ে তোলার লক্ষ্যে শীঘ্রই ক্লিন ডেভেলপমেন্ট মেকানিজম প্রকল্প শুরু হচ্ছে
কার্বনমুক্ত, স্বাস্থ্যকর রাজশাহী মহানগরী গড়ে তোলার জন্য আবর্জনা ব্যবস্থাপনার উন্নয়নের লক্ষ্যে ক্লিন ডেভেলপমেন্ট মেকানিজম (সিডিএম) প্রকল্প বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে। রাজশাহী ছাড়াও খুলনা সিটি কর্পোরেশন, নারায়নগঞ্জ পৌরসভা ও মানিকগঞ্জ পৌরসভাকে এ প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সরকারের উদ্যোগে পরিবেশ অধিদপ্তরের আওতায় প্রকল্পটি বাস্তবায়নের প্রাথমিক পদক্ষেপ হিসাবে গতকাল সকালে নগরভবনে মেয়রের কনফারেন্স রুমে পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রকল্পের পরিচালক ফজলে রাব্বি সাদেক আহমেদ প্রকল্পের বিস্তারিত কার্যক্রম উপস্থাপন করেন। সভায় জানানো হয়, এ প্রকল্পের মাধ্যমে বিষাক্ত কার্বন ডাই অক্সাইড গ্যাস কমিয়ে আনা হবে এবং প্রতিদিন উৎপাদিত আবর্জনা থেকে সার তৈরি করা হবে। প্রকল্প বাস্তবায়নে জার্মান ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান জিটিজেড টেকনিক্যাল সার্পোট দিবে। প্রকল্প বিষয়ক একটি কর্মশালা কিছু দিনের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে।

পর্যালোচনা সভায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক পরিবেশ উন্নয়নের জন্য রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের গৃহীত প্রকল্প ও বর্তমান কার্যক্রম উপস্থাপন করেন। পরিবেশ উন্নয়ন কাজের আরো উন্নয়নের জন্য জলবায়ু পরিবর্তন তহবিল ভিত্তিক ১০ কোটি ১৫ লাখ টাকার একটি প্রকল্প সকারের কাছে দাখিল করা হয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় ফায়ার ব্রিগেড হতে কোর্ট পর্যন্ত রাস্তার মাঝখানে আইল্যান্ড নির্মাণ, প্রশস্তকরণ ও ১৬,৭৫০ টি গাছ লাগানো হবে।

পর্যালোচনা সভায় রাসিকের ভারপ্রাপ্ত মেয়র মোঃ সরিফুল ইসলাম বাবু, অর্থ ও সংস্থাপন স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আব্দুল হামিদ সরকার (টেকন), নগর অবকাঠামো ও সংরক্ষণ স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ রবিউল আলম (মিলু), পানি ও বিদ্যুৎ স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বেলাল আহমেদ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ কামরুজ্জামান, পরিবেশ উন্নয়ন স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ বজলুল হক, নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ নূরুজ্জামান টিটো, পরিবেশ উন্নয়ন স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ জাহের হোসেন (সুজা), বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আব্দুস সোবহান, নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ শহিদুল ইসলাম, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আজাহার আলী, নির্বাহী প্রকৌশলী খন্দকার খায়রুল বাশার, গোলাম মুর্শেদ, রেয়াজত হোসেন, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মোঃ মামুন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সূ্ত্র:সানসাইন

পাতাটি ৩০৬ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন