logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo নগরীতে পুকুরে নৌকা ডুবে ৩ ছাত্রের করুন মৃত্যু
নগরীর বড় বনগ্রাম এলাকায় পুকুরে নৌকাডুবিতে ৩ ছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে বড়বনগ্রাম ফুলতলা এলাকার পাশে পলাশের বাংলো বাড়িতে অবস্থিত পুকুরে নৌকা ডুবির এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ছাত্র ফজলে তানভীর (২০), ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজের ছাত্র আবু সাদিক মো. ফয়সাল (২০) ও বরেন্দ্র মহাবিদ্যালয়ের এইচএসসি পরীক্ষার্থী আলী হায়দার উল্লাস (২২)। নিহতদের সবারই বাড়ি নগরীর কেশবপুর এলাকায়। এদের মধ্যে ফজলে তানভীর ও উল্লাস চাচাতো ভাই। আর ফয়সাল তাদের ফুপাতো ভাই। আশংকাজনক অবস্থায় তাদের আরেক বন্ধু নগরীর বেলদারপাড়া এলাকার আলী শাহরুখকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের আবেদনের প্রেক্ষিতে পুলিশ নিহত ৩ জনের লাশ তাদের নিকট হস্তান্তর করেছে। এদিকে, ছাত্রদের অকাল মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে পরিবারের সদস্য ও স্বজনরা ভীড় জমায় হাসপাতালে। তাদের আহাজারিতে সেখানকার বাতাস ভারী হয়ে যায়। সৃষ্টি হয় এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের।
বড় বনগ্রাম এলাকার বাসিন্দা আবুল কালাম আজাদ জানান, নগরীর বড়বনগ্রাম এলাকায় পলাশের বাংলোতে ৭ বন্ধু মিলে পিকনিক করতে যায়। তাদের সাথে ছিলো পলাশের দুই ছেলে নিলয় ও প্রত্যয়। তারা কেউ প্রাইভেটে কেউ বেড়াতে যাবার কথা বলে বাড়ী থেকে বের হয়। দুপুরে বাংলোর পুকুরে থাকা একটি ডিঙ্গি নৌকায় উঠে সাত বন্ধু। ছোট্ট নৌকায় একসাথে দু’জনের বেশি উঠা নিরাপদ না হলেও সাত বন্ধু উঠে বসে তাতে। এসময় নৌকাটি মাঝ পুকুরে পৌছালে ঘটে যায় দূর্ঘটনা। নৌকাটি হঠাৎ উল্টে ডুবে যায়। নিলয় ও প্রত্যয় সাঁতরে পাড়ে উঠতে পারলেও তানভীর, উল্লাস, ফয়লাস ও শাহরুখ সাঁতার না জানায় ডুবে যায় পানিতে। এসময় নিলয় ও প্রত্যয়ের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে পুকুর থেকে উদ্ধার করে চার বন্ধুকে। দ্রুত তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে তানভীর, ফয়সাল ও উল্লাসকে মৃত ঘোষনা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। অসুস্থ অবস্থায় শাহরুখকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থাও আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।
রামেক হাসপাতালে নিহত ফয়সালের বড় ভাই হাসান আল বান্না জানান, তার বাবা নগরীর ইসলামী ব্যাংক আলুপট্টি শাখার সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আব্দুল কুদ্দুস ও মা কাজে ঢাকায় অবস্থান করছেন। সকালে বন্ধুদের নিয়ে দাওয়াত খেতে যাওয়ার কথা বলে বের হয় ফয়সাল। দুপুরে জানতে পারি যে সে পানিতে ডুবে মারা গেছে। এছাড়া আশংকাজনক শাহরুখের এক আত্মীয় জানায়, শাহরুখ সকালে প্রাইভেটের কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। পরে তার মৃত্যুর খবর শুনতে পেয়ে হাসপাতালে ছুটে আসি।

পাতাটি ৩২৫ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন