logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo যুদ্ধাপরাধীদের দ্রুত বিচারের দাবি জানিয়ে রাজশাহীতে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত
মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার রাজাকার মুক্ত বাংলাদেশ করার অঙ্গীকার এবং যুদ্ধাপরধীদের বিচার দ্রুত শেষ করার দাবি জানিয়ে সারা দেশের মত রাজশাহীতেও উদযাপিত হয়েছে মহান বিজয় দিবস। এবার ছিলো মহান বিজয় দিবসের ৩৯তম বার্ষিকী। এই দিবসে সারা দেশের মত রাজশাহীর জনতার কণ্ঠেও ধ্বনিত হয়েছে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার তরান্বিত করার দাবি। প্রশাসনিক পর্যায় থেকে শুরু করে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠন নানা অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে পালন করেছে মহান বিজয় দিবস। এ উপলক্ষে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে বিভিন্ন সরকারী,বেসরকারী আধা সরকারী ও স্বায়ত্বশাসিত অফিস আদালতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। রাজশাহী পুলিশ লাইনে বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে তোপধ্বনি করা হয়। বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে ছিলো বিজয় র‌্যালি, আলোচনা সভা, চিত্র প্রদর্শনী,সাংস্কৃতিক অনুুষ্ঠান মানববন্ধন, শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ ইত্যাদি। ১৬ ডিসেম্বর সকালে রাজশাহী মহানগরীর সাহেব বাজার জিরো পয়েন্ট এলাকা বিজয় র‌্যালির প্রধান পয়েন্টে পরিণত হয়। বিভিন্ন এলাকা থেকে বিভিন্ন সংগঠনের বিজয় র‌্যালিগুলো এসে সাহেব বাজার জিরো পয়েন্ট এলাকা প্রদক্ষিণ করতে থাকে। রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনার ভুবন মোহন পার্ক শহীদ মিনার এ সময় বিজয়ের অপার আনন্দে উচ্চ্‌সিত জনতার পদভারে মুখরিত হয়ে ওঠে। সকালে মহাজোট বের করে নগরীতে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ব্যানারে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন বিজয় র‌্যালি বের করে। মুক্তিযোদ্ধা সংসদও বের করে র‌্যালি।
এ উপলক্ষে রাজশাহী জেলা স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সমবেত কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন দল অংশগ্রহণ করে।
কুচকাওযাজ অনুষ্ঠানে অভিবাদন গ্রহণ করেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল মান্নান।এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রাজশাহী জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ দিলোয়ার বখত, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক সাবেক মেয়র এ্যাড. আব্দুল হাদী। এ সময় স্টেডিয়ামে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান মনমুগ্ধকর ডিসপ্লে প্রদর্শন করে।
মহাজোটের বর্ণাঢ্য র‌্যালি
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে মহাজোট রাজশাহীর উদ্যোগে নগরীতে ১৬ ডিসেম্বর একটি বর্ণাঢ্য বিজয় র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি আওয়ামীলীগ কার্যালয় থেকে বের হয়ে সাহেব বাজার জিরো পয়েন্ট, মনিচত্বর, সদর হাসপাতালের মোড়, হেতেমখাঁ মোড়, রাজারহাতা, বাটার মোড় হয়ে জিরো পয়েন্ট দিয়ে পুনরায় আওয়ামীলীগ অফিসে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন, মহাজোট নেতা ও আওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় সদস্য রাজশাহী সিটি মেয়র এ এইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরো সদস্য ও রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা। এছাড়াও র‌্যালিতে অন্যান্যের মধ্যে আরো উপসি’ত ছিলেন, মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, ওয়ার্কার্স পার্টির মহানগর সম্পাদক লিয়াকত আলী, জাসদের মহানগর সাধারণ সম্পাদক আব্দুলৰাহ আল মাসুদ শিবলী, জাতীয় পার্টির দুরুল হুদা,ন্যাপের মোস্তাফিজুর রহমান খান আলম প্রমুখ।
র‌্যালি শেষে এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন ও ফজলে হোসেন বাদশা সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দিয়ে র‌্যালি শেষ করেন।
আওয়ামীলীগ
মহানগর আওয়ামীলীগের উদ্যোগে এ উপলক্ষে সকালে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয় এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধুসহ জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। সকাল ১০ টায় দলীয় কার্যালয় থেকে র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন আওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় সদস্য সিটি মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, মহানগর ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, সহ-সভাপতি আলহাজ্ব রফিক উদ্দিন আহম্মেদ, মোহাম্মদ আলী কামাল, মীর ইকবাল, যুগ্ম সম্পাদক নওশের আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ শাহাদত হোসেন, মোস্তাক আহম্মেদ, আইন সম্পাদক এ্যাড. আসলাম সরকার প্রমুখ।
র‌্যালি শেষে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।
ওয়ার্কার্স পার্টি
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে গত ১৬ ডিসেম্বর সকাল ১০ টায় ওয়ার্কার্স পার্টির কার্যালয় হতে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে ভুবন মোহন পার্ক শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পন করে। পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলে নেতৃত্ব দেন ওয়ার্কার্স পার্টির মহানগর কমিটির সম্পাদক লিয়াকত আলী লিকু, জেলা কমিটির সম্পাদক রফিকুল ইসলাম পিয়ারুল, মহানগর কমিটির সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য সাদরুল ইসলাম, ওয়ার্কার্স পার্টি মহানগর কমিটির সদস্য ও জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের জেলা সভাপতি মোঃ তৈয়বুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ্‌এ্যাড. ফেরদৌস জামিল টুটুল, যুবমৈত্রীর মহানগর কমিটির আহবায়ক সালাউদ্দিন ইভান, যুগ্ম আহবায়ক মাসুম আক্তার অনিক, যুবমৈত্রী জেলার আহবায়ক মনিরুদ্দীন পান্না, মহানগর সদস্য মনিরুজ্জামান মনির, ছাত্রমৈত্রী মহানগর সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মতিউর রহমান মতি, সাধারণ সম্পাদক আকছারুজ্জামান সুমন ও বিমান চক্রবর্তী সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। মিছিল শেষে রাজশাহী-২ আসনের সংসদ সদস্য ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরো সদস্য জননেতা ফজলে হোসেন বাদশার নেতৃত্বে মহাজোটের বর্ণাঢ্য বিজয় র‌্যালিতে অংশগ্রহণকরেন।
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ
মহানগর
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ১৬ ডিসেম্বর সকাল ১০ টায় সাহেব বাজার জিরো পয়েন্ট থেকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ রাজশাহী মহানগরের উদ্যোগে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালি রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণশেষে শহীদ কামারুজ্জামানের কবরস’ানে গিয়ে তার আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।
দোয়া পরিচালনা করেন, মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান নবী।
দোয়া শেষে র‌্যালিটি পুনরায় সাহেববাজার জিরো পয়েন্টে এসে শেষ হয়। এতে নেতৃত্ব দেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মহানগর ইউনিট কমান্ডের আহবায়ক ডা: আব্দুল মান্নান, যুদ্ধকালীন কমান্ডার সফিকুর রহমান রাজা, ফরহাদ আলী মিয়া, এ্যাড. মতিউর রহমান, মোঃ আব্দুল মতিন, রফিকুদ্দৌলা (বাবুল), তৈয়বুর রহমান, অ্যাড. আবুল হাসমত বেগ, মোঃ মীর ইকবাল, আমজাদ হোসেন, মোঃ হাবলুল মতিন, ইঞ্জিনিয়ার মজিবুর রহমান প্রমুখ।
জাতীয় পার্টি
গত বৃহবস্পতিবার বিকাল ৪ টায় জাতীয় পার্টি গনকপাড়া কার্যালয়ে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এর উপদেষ্টা রাজশাহী মহানগর সভাপতি মুক্তিযো্‌দ্ধা সাবেক এম পি ও মেয়র দুরুল হুদা, উক্ত সভায় বক্তব্য রাখেন মহানগর সহ সভাপতি এ্যাড. মমতাজ উদ্দিন বাবু, মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক শামিম সরকার,জাতীয় যুব সংহতি কেন্দ্রিয় নেতা রাজশাহী মহানগর সভাপতি সালাহ উদ্দিন মিন্টু, জাতীয় যুব সংহতি রাজশাহী জেলা সভাপতি খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান ডালিম, জাতীয় মহিলা পাটিৃর সভানেত্রী সফুরা সরকার, জাতীয় পার্টির মহানগর সহ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম, সমবায় সম্পাদক আসরাফ আলি, মহানগর সহ প্রচার সম্পাদক আসাদুল হক দুখু, যুব সংহতি জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন রিপন, জাপা নেতা কুদ্দুস, জাপা নেতা আসরাফ আলী, শাহাদত হোসেন প্রমুখ। বিজয় দিবসে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান এবং জেল খানায় নিহত জাতীয় চার নেতা সহ মুক্তি যুদ্ধে শাহাদত বরণ কারী সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয় এবং জাতীয় পার্টি কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।
বঙ্গবন্ধু পরিষদ রাকাব
বঙ্গবন্ধু পরিষদ, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক মহান বিজয় দিবস পালন করেছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল ১০ তলা ভবন হতে মিছিলসহ রাজশাহী কোর্ট চত্বরস’ শহীদ মিনারে গমন ও এবং দিবসের শুরুতে শহীদবেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, প্রত্যুষে পতাকা উত্তোলন এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ জাতীয় ৪ নেতা তথা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজ উদ্দীন আহমদ, ক্যাপ: মুনসুর আলী ও এ এইচ এম কামারুজ্জামান (হেনা ভাই) এর প্রতীককৃতিতে মাল্যদান, সকালে বিজয় র‌্যালিতে অংশ গ্রহণ, সন্ধ্যায় রাজশাহী সিটি ভবনের গ্রীণ প্লাজায় জেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার শীর্ষক আলোচনা সভায় যোগদান।
পরিষদের সভাপতি এম জি আজমের নেতৃত্বে উপরোক্ত কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণ করেন, অন্যতম সদস্য আজিজুল ইসলাম সরকার, সদস্য সচিব মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ইয়াছিন আলী মোল্লা, মুক্তিযোদ্ধা এ কে আজাদ, আতাউর রহমান, রফিক, মোস্তাক হাসান, আলমামুন, রেজা তৌফিকুল আলম, পিয়ারুল ইসলাম ও শফিকুল আলম প্রমুখ।
বিএনপি
জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) রাজশাহী মহানগর শাখা যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালন করে। ১২.০১ মিনিটে মুক্তিযুদ্ধে নিহত শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন, বিএনপি কেন্দ্রিয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মহানগর বিএনপির সভাপতি সাবেক মেয়র ও এমপি মিজানুর রহমান মিনু, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. শফিকুল হক মিলন, বিএনপি কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য মহানগর যুবদলের আহবায়ক মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, বোয়ালিয়া থানা বিএনপির সভাপতি সাইদুর রহমান পিন্টু, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সাফিক, মহানগর যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক আসলাম সরকার ছাত্রদল কেন্দ্রিয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ সুইট, মহানগর ছাত্রদল সভাপতি মাহফুজুর রহমান রিটন, সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন চৌধুরী শান্ত প্রমুখ। সকাল ৮ টায় মহানগর বিএনপির প্রধান কার্যালয়ে ভুবন মোহন পার্কে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। রঙ্গীন বেলুন ফেস্টুন এবং শান্তির প্রতীক কবুতর উড়ানো হয়।বিকালে মহানগর বিএনপির প্রধান কার্যালয়ে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মিজানুর রহমান মিনু। সভাপতিত্ব করেন, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম খোকা। সভা পরিচালনা করেন, মুক্তিযোদ্ধা দল কেন্দ্রিয় কমিটির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, এ্যাড. শফিকুল হক মিলন, মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল,মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক এলাহী বকস মন্ডল, মশিউল আলম রাজা, সেলিম রেজা রেন্টু প্রমুখ।
গণমৈত্রী সাংস্কৃতিক সংগঠন
বিজয় দিবস উপলক্ষে গণমৈত্রী সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে রাজশাহী কোর্ট সংলগ্ন শহীদ মিনার চত্বরে দিনব্যাপি কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে দুই গ্রুপে শিশুদের চিত্রাংকন ও কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। সন্ধ্যায় প্রতিযোগিদের মধ্যে ১ম ২য় ও ৩য় স’ান অধিকারীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ এবং সব শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
সংগঠনের আহবায়ক একে মাসুদের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপসি’ত থেকে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন, রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা। অন্যান্যের মধ্যে উপসি’ত ছিলেন, সর্বজনাব কাজী সাহাবুদ্দীন কটু, মাহবুবুল আলম বুলবুল ও রেজাউল হক।
অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সেলিম মনোয়ার ও আব্দুল গফুর।
মুক্তিযোদ্ধা সংহতি
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদ আয়োজিত উত্তাল-৭১ রাজশাহী শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন করেন, আওয়ামীলীগ কেন্দ্রিয় নির্বাহী সদস্য ও সিটি মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। উপসি’ত ছিলেন, মুক্তিযোদ্ধা আতিয়ার রহমান মনা, তপন সেন,মাহাবুব উল আলম বুলবুল, আব্দুল লতিফ, নকিবুল ইসলাম নবাব, আব্দুল কাইউম সরকার, শাজাহান শামীম, রওশন আলী গাবল প্রমুখ।
উত্তাল-৭১ রাজশাহী শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনী উদ্বোধনকালে মেয়র লিটন বলেন, ত্রিশ লক্ষ শহীদ ও তিনলক্ষ মা বোনের সস্ম্রমের বিনিময়ে অর্জিত হয় এই দেশ। আলোকচিত্র প্রদর্শনী নতুন প্রজন্মকে সত্য ইতিহাস জানাতে সহায়তা করবে।
ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি
একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, রাজশাহী জেলা ও মহানগর শাখা আলুপট্টি মোড় বঙ্গবন্ধু চত্বর হতে বিজয় র‌্যালি বের করে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনার ও ভুবন মোহন পার্ক শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন, ভাষাসৈনিক আবুল হোসেন, অধ্যাপক কামরুজ্জামান, মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী বরজাহান, অধ্যাপক শহিদুল ইসলাম, অধ্যাপক রইসুদ্দিন, শামিম আখতার হৃদয়, অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, শাহ আলম বাদশা, মনিরুজ্জামান উজ্জল প্রমুখ।
বঙ্গবন্ধু শিক্ষা
বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ রাজশাহীর সভাপতি অধ্যাপক রইস উদ্দীন ও সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমানের নেতৃত্বে এক বিজয় র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালিটি রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছে। র‌্যালিতে উপসি’ত ছিলেন, পরিষদের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ জুল ফিকার আহমেদ, আশরাফুল ইসলাম সুলতান, রফিকুজ্জামান, কামরুজ্জামান, মাহবুবুর রহমান, গোলাম গাউস, দিলিপ কুমার, শামিম আক্তার হৃদয়, নাজমুল ইসলাম, সাইদুল ইসলাম, মজিবুর রহমান, শেখ কামারুল, তোজাম্মেল হক প্রমুখ।
বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদ
ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন রাজশাহী কেন্দ্রের কমিটির ল্যাবে বিজয় আমার গর্ব আমার অহংকার শীর্ষক মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতিত্ব করেন, পরিষদের সভাপতি লুৎফুর রহমান খোকন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন, খাদেমুল ইসলাম। আরজাদ হোসেন, আবুল বাসার। মাহবুবুল আলম, এ এম মাসুদ আল ফারুক, আব্দুস সাত্তার, আব্দুর রশিদ, মোতাসিন বিল্লাহ, বাহার উদ্দিন মৃধা উৎপাল রায় প্রমুখ
রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে কর্মরত পাঁচজন মুক্তিযোদ্ধা মিন্নাত আলী, আব্দুল বারী, মজিবর রহমান, শুকুর উদ্দিন ও মহির উদ্দিন কে সংবর্ধনা প্রদান করে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যার প্রফেসর তানবিরুল আলম।
সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। বিশেষ অতিথি ছিলেন, শিক্ষাবিদ ও বোর্ডের প্রাক্তন চেয়ারম্যান প্রফেসর নুরুল আলম। উপসি’ত ছিলেন, বোর্ডের সচিব প্রফেসর আব্দুর রউফ মিয়া,কলেজ পরিদর্শক আনারুল হক প্রামাণিক, মুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমান, শুকুর উদ্দিন, আব্দুর রোকন মাসুম প্রমুখ।
মুক্তিযোদ্ধা মহিলা কমান্ড
জেলা মুক্তিযোদ্ধা মহিলা কমান্ড এ্যাড. পূর্ণিমা ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে মুক্তিযোদ্ধা নেতৃবৃন্দ শহীদানের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। এর আগে শহীদ কামারুজ্জাামান হেনা স্কয়ার হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিলে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নেতৃবৃন্দসহ খায়রুজ্জামান মেয়র লিটন, ফজলে হোসেন বাদশা এমপি উপসি’ত ছিলেন। আলুপট্টির মোড়ে সমাবেশ ও বিশিষ্ট নেতৃবৃন্দের বক্তৃতার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়।
সামপ্রদায়িকতা-জঙ্গিবাদ বিরোধী মঞ্চ
সামপ্রদায়িকতা জঙ্গিবাদ বিরোধী মঞ্চ রাজশাহী বিজয় দিবস পালন করে। রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে মঞ্চের নেতৃবৃন্দ পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। এ সময় মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের নেতৃবৃন্দও উপসি’ত ছিলেন। মঞ্চের পক্ষে আহবায়ক ইন্দ্রনীল মৈত্র, কামরুল ইসলাম, শাহ আলম বাদশা, আশিক মাহমুদ, সৈকত সেন, প্রমুখ উপসি’ত ছিলেন।
জেলা ক্রীড়া সংস’া
জেলা ক্রীড়া সংস’ার পক্ষ থেকে র‌্যালি বের করা হয়। রেলওয়ে শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ অর্পণ শেষে স্টেডিয়ামে এসে শেষ হয়। র‌্যালির নেতৃত্ব দেন, রাজশাহী জেলা ক্রীড়া সংস’ার সাধারণ সম্পাদক ইমতিয়াজ আহমেদ সামসুল হুদা উপসি’ত ছিলেন। সিরাজুর রহমান খান, ওবাইদুর রহমান, মোজাম্মেল হক, আসাদুজ্জামান আসাদ প্রমুখ।
ন্যাপ কমিউনিষ্ট পার্টি ছাত্র ইউনিয়ন
বিজয় দিবসে ন্যাপ কমিউনিস্ট পার্টি ছাত্র ইউনিয়ন গেরিলা বাহিনীর সদস্যবৃন্দ সকালে ভুবন মোহন পার্ক শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন সে সময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন, গেরিলা বাহিনী আহবায়ক মুস্তাফিজুর রহমান খান সদস্য সচিব এনামুল হক।
অনুষ্ঠানে উপসি’ত ছিলেন, যুগ্ম আহবায়ক এডভোকেট সাইদুল ইসলাম, রনজিৎ বর্মন, নারায়ন চন্দ্র,আবুল কালাম আজাদ, আসলাম অপু প্রমুখ।
যুবলীগ
আওয়ামী যুবলীগ রাজশাহী জেলা শাখা বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল রাত্রী ১২.০১ মিনিটে ভুবন মোহন পার্কের স্মৃতিসৌধ শ্রদ্ধাঞ্জলী। লক্ষীপুরস’ দলীয় কার্যালয়ে জমায়েত হয়ে স্মৃতিসৌধে গমন। খুবভোরে লক্ষ্মিপুরস’ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুসহ জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, সারাদিন মাইকযোগে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ প্রচার করা। সকালে কর্মসূচিতে উপসি’ত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রিয় কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য আশরাফ হোসেন নবাব, রাজশাহী জেলা যুবলীগ সভাপতি আবু সালেহ সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আসাদুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আযম সেন্টু, ওয়াসিস রেজা লিটন, যুবনেতা নয়ন, পিন্টু, মিলন, পল্লব, ডেভিডসহ যুবলীগের নেতাকর্মিরা ।
কানপাড়ায় বিজয় দিবস
মানবতা বিরোধী ও যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচারের দাবিতে কানপাড়ায় সম্মিলিতভাবে মহান বিজয় দিবস পালিত হয়। স’ানীয় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কানপাড়া বাজার সমিতি, সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম ৭১ ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ যৌথভাবে দিবসটি পালনকরে।কর্মসূচির মধ্যে ছিল, প্রত্যুষে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানে জাতীয় ও সংগঠনের পতাকা উত্তোলন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ জাতীয় ৪ নেতা যথাক্রমে সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজ উদ্দিন আহমেদ, ক্যাপ: এম মুনসুর আলী ও এ এইচ কামারুজ্জামান এর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, কানপাড়া কলেজ মাঠ প্রাঙ্গণে শহীদ মিনারে পাদদেশে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও সকাল ১০ টায় কানপাড়া বাজারে আলোচনা সভা।
কানপাড়া জোবায়দা কলেজের অধ্যক্ষ মুক্তিযোদ্ধা আনিছুর রহমানের সভাপতিত্বে সকাল ১০ টায় অনুষ্ঠিত বিজয় দিবসের আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, মুক্তিযোদ্ধা জেলা যোগাযোগ কমান্ডার কে এম এম ইয়াছিন আলী, দুর্গাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ও জয়নগর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল করিম মোল্লা, মুক্তিযোদ্ধা স’ানীয় কমান্ডার ইসাহাক আলী, অধ্যাপক মামুন অর রশীদ, আওয়ামীলীগের নেতা আব্দুস সাত্তার ও শমসের আলী ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি নুর মোহাম্মদ, সিরাজুল ইসলাম মাস্টার, তছের উদ্দীন, মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব সরদার শমসের আলী, মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম ৭১ আহবায়ক ইন্তাজ আলী, ইসলাম উদ্দীন, মহরম, ও মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ ইয়াদ আলী প্রমুখ।
রাজশাহী বিভাগীয় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমি
ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমি রাজশাহীর এর ব্যবস’াপনায় মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে দুপুর ৩ টায় আদিবাসী ছেলে-মেয়েদের মধ্যে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা এবং সন্ধ্যা ৬ টায় মিলনায়তনে আলোচনা সভা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে আলোচক হিসাবে উপসি’ত ছিলেন, জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সভাপতি অনিল মারান্ডী,জাতীয় আদিবাসী পরিষদের রাজশাহী জেলা সভাপতি বিমলচন্দ্র রাজোয়ার ও আদিবাসী নেত্রী সমিলা টুডু। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, একাডেমীর পরিচালক এস এম শামীম আকতার।
ইউসেপ
জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বিভাগীয় স্টেডিয়ামে ইউসেপ মোমেনা বখশ স্কুল, হড়গ্রাম রাজশাহীর শিক্ষার্থী কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লেতে অংশগ্রহণ করে প্রথম স’ান অধিকার করেছে।
আওয়ামীলীগ ৩০ নম্বর ওয়ার্ড
মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আওয়ামীলীগ ৩০ নম্বর ওয়ার্ড উত্তর শাখা বিশ্ববিদ্যালয়ের বধ্যভূমি স্মৃতি সৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। রাব্বেল হোসেন, আক্কাস আলী, মিজানুর রহমান বাবু, আঃমজিদ, আলাউদ্দিন, লিয়াকত আলী, আবুল কালাম মন্ডল, আলাউদ্দিন, রাজ্জাক রাজা, আফসার আলী প্রমুখ।
২৮ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগ
মহান বিজয় দিবসে মতিহার থানার ২৮ ও ২৯ নং ওয়ার্ড যুবলীগ ও ছাত্রলীগ র‌্যালি করেছে। র‌্যালিটি ওয়ার্ডের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে পুষ্প অর্পণ করে। উপসি’ত ছিলেন, বদি, মনি, বজলু, গিয়াস, নিজাম, আলমগীর হোসেন রমজান, মহল রবিউল মোসারফ শহিনুল বাবু, সুজন, মাহবুব প্রমুখ।
সতীর্থ ৭৪
রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলের ১৯৭৪ এস সি সি ব্যাচের সামাজিক সংগঠন সতীর্থ ৭৪ বিজয় দিবস উদযাপন করেছে। রাজশাহী কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারে বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। বিকেলে আলুপট্টিস’ মির্জা জাকারিয়া স্মৃতি সংসদের কার্যালয়ে সভাপতি খাদেমুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অংশ গ্রহণ করেন, আমিনুল হক আমিন, সুলতান চাগতাই,সিদ্দিকুর রহমান,আব্দুল হামিদ, আব্দুল খালেক ও কাজী সুলতান মির্জা আনোয়ার হোসেন পটু।
বিসিক
ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করর্পোরেশন (বিসিক) রাজশাহী দুই দিন ব্যাপি ক্ষুদ্র কুটির এবং হস্তশিল্পজাত পণ্যের মেলা ও প্রদর্শনীর আয়োজন করে। নৈপুণ্য বিকাশ কেন্দ্র সংলগ্ন মাঠে মেলাটি উদ্বোধন করেন, বিসিক রাজশাহী বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক নিখিল চন্দ্র সাহা উপসি’ত ছিলেন।
হকার্স শ্রমিক ইউনিয়ন
রাজশাহী শহর সংবাদ পত্র হকার্স শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্যোগে জাতীয়তাবাদী সংবাদপত্র হকার্স শ্রমিক ইউনিয়ন কে নিয়ে বিজয় দিবস উপলক্ষে বার্ষিক বনভোজন ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত ক্রীড়া প্রতিযোগিতা রাজশাহী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মহাবিদ্যালয়ের খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ১০টি খেলায় মোট ৩১ জন বিভিন্ন খেলায় জয়লাভ করে।
যার মধ্যে ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় রাজশাহী শহর সংবাদপত্র হকার্স শ্রমিক ইউনিয়ন এর সাধারণ সম্পাদক জামিউল করিম সুজন এর দলের সাথে সভাপতি দুলাল হোসেন এর দল ১৪ রানে পরাজিত হয়। সকল খেলায় বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন আলামিন, সাইদুর রহমান, মাহাবুল, সাহেব আলী, মিলন, খেলার সকল পুরস্কার নোটিশ দ্বারা জানানো হবে।
দারুস সালাম মাদরাসা
রাজশাহী দারুস সালাম কামিল মাদ্রাসার মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও আলোচনা সভা মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সভাপতি আলহাজ্ব সারওয়ার কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা করেন মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সদস্য বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মাসুম আক্তারুজ্জামান বদি। মুক্তিযোদ্ধা ও সমাজ সেবক আব্দুস সালাম কোরবান। প্রধান অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ রাজশাহী জেলা ইউনিট কমান্ডার বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা সাইদুর রহমান। মুক্তিযুদ্ধে নিহত বীর শহীদদের আত্মার মাগফেরাতের উদ্দেশ্যে দোয়া পরিচালনা করেন, ভার প্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাও মোঃ আব্দুল মান্নান।
পবা
মহান বিজয় দিবস পালন উপলক্ষে পবায় বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল রাত ১২ টা ১ মিনিটে নওহাটা স্মৃতিসৌধে ৩১ বার তোপধ্বনি শেষে পুষ্পস্তবক অর্পণ। এ সময় উপজেলা প্রশাসন, নওহাটা পৌর প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, স’ানীয় আওয়ামীলীগ ও এর অং্‌গ সংগঠন, বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠন, রাজশাহী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পবা প্রেসক্লাব, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন এর পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণকরা হয়। সকালে নওহাটা স্কুল মাঠে আনুষ্ঠানিক ভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন, রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য মেরাজ উদ্দিন মোল্লা। পরে কুচকাওয়াজ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। দুপুরে আয়োজন করা হয় মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা ও আলোচনা সভা। পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সেলিম মাহমুদ উল হাসান এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য মেরাজ উদ্দিন মোল্লা। বিশেষ অতিথি ছিলেন, রাজশাহী বিএমডিএর চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ঠান্ডু পবা উপজেলার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মুনসুর রহমান, নওহাটা পৌর মেয়র আব্দুল গফুর সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সুফিয়া হাসান, পবা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুর রউফ নান্নু, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মানজাল, সহ-সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল খালেক, পবা স্বাস’্য কর্মকর্তা ডা: তৌফিকুল ইসলাম, নওহাটা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আশরাফ আলী দেওয়ান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন পবা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এস এম কামরুজ্জামান।সার্বিক উপস’াপনায় ছিলেন, পবা খাদ্য কর্মকতৃা রফিকুজ্জামান বেল্টু। বিকেলে নওহাটা মাঠে প্রীতি ফুটবল প্রতিযোগিতা ও সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
সিটি কলেজ
সরকারী সিটি কলেজের শিক্ষক,কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রী বিজয় র‌্যালি করেছে। র‌্যালি শেষে কলেজ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পনের পর আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভাপতিত্ব করেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর কবিরুল ইসলাম।
শাহমখদুম কলেজ
শাহমখদুম ডিগ্রি কলেজে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। বক্তব্য রাখেন, সাদিকুল ইসলাম, মনজুর মুরশীদ, আবু বকর সিদ্দিক, আবদুর রাজ্জাক প্রমুখ।
রাবি কর্মচারী ইউনিয়ন
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় চতুর্থ শ্রেণী কর্মচারী ইউনিয়ন বিজয় দিবস উদযাপন করেছে। ইউনিয়ন কার্যালয়ে মহান বিজয় দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতিত্ব করেন, ইউনিয়ন সভপতি কাজী আব্দুল আজিজ (কিরন)। বক্তব্য রাখেন, আক্কাস আলী, মাহাতাব আলী, বাদশা মিয়া, হাফিজুর রহমান সরদার, আলী আসগর আলী হোসেন বেল্টু আরজ আলী প্রমুখ।
মহিলা পলিটেকনিক
রাজশাহী মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে মহান বিজয় দিবস দিনব্যাপি উদযাপিত হয়।সকাল ৭.০০ ঘটিকায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। ১১.০০ ঘটিকায় অধ্যক্ষ ওমর ফারুক এর সভাপতিত্বে প্রতিষ্ঠানের খেলার মাঠে বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ের কিছু সি’রচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। সভায় দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে আবু নাসির মুহাম্মদ সিদ্দিক হোসেন মুক্তিযুদ্ধের ঘটনাবহুল দিনগুলি তুলে ধরেন এবং এর তাৎপর্য ব্যাখ্যা করেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন, ওমর ফারুক। শিক্ষক ও কর্মচারীদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, আরেফ রব্বানী, জাকির হোসেন, সাজ্জাদ মুফতি, সাইদুর রহমান এবং একাত্তরের চিঠি হতে একটি চিঠি পড়ে শোনান শিক্ষক শিল্পী রানী সাহা। আলোচনা শেষে নিজস্ব শিল্পীদের পরিবেশনায় মুক্তিযুদ্ধের গান ও কবিতা নিয়ে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
দুপুর ২:৩০ ঘটিকায় রাজশাহী মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর শিক্ষক ও কর্মচারীর মধ্যে প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ ও ভলিবল প্রতিযোগিতা এবং শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিভিন্নত ধরনের মজার গ্রাম বাংলার খেলা অনুষ্ঠিত হয়।
তৃণমুল
বরেন্দ্র উন্নয়ন ফোরাম ও স্টেপস টুয়ার্ডস ডেভেলপমেন্ট এর সহযোগিতায় এবং তৃণমূল সংস’া কর্তৃক আয়োজিত দিনব্যাপি মোহনপুর উপজেলার কেশরহাট পৌরসভার অন্তর্ভুক্ত ধামিন নওগাঁ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিবাদ পক্ষ পালন উপলক্ষে ইভটিজিং প্রতিরোধে গড়ে তুলুন সামাজিক এবং রাজনৈতিক আন্দোলন শীর্ষক আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশের মূল বিষয় ছিল এলাকায় ইভটিজিং বিষয়ে গণ সচেতনতা বৃদ্ধি ও সেই সাথে জনগণকে স’ানীয় নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি সম্পর্কে অবগত করা। সভাপতি ছিলেন অত্র স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা অনাদী নাথ প্রামাণিক। ইভটিজিং প্রতিরোধ বিষয়ে বক্তব্য রাখেন, ঐ স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ। আরও উপসি’ত ছিলেন বিশ্বনাথ প্রামানিক, মোঃ শফিকুল ইসলাম,প্রধান শিক্ষক, কেশরহাট উচ্চ বিদ্যালয়, মাসুদ আহম্মেদ রানা, কাউন্সিলর ওয়ার্ড নং ১ ও অত্র স্কুলের শিক্ষক, অভিভাবক, ছাত্র-ছাত্রী, এলাকার সুশীল সমাজ প্রতিনিধিবৃন্দ। নারীর অগ্রযাত্রায় ইভটিজিং একটি বাঁধা শীর্ষ প্রতিবেদন পাঠ করেন তৃণমূল সংস’ার প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোঃ জিয়াউর রহমান। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, জিসিএ দলের সদস্য অরুন কুমার প্রামাণিক। সহযোগিতায় ফোকাল পার্সন মোঃ শাহাদত হোসেন, বিকাশ চন্দ্র সাহা, জীবন নেসা, ইকবাল হোসেন, মতিউর রহমান প্রমুখ।
ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন
আইইবি রাজশাহী কেন্দ্র বিজয় দিবস উদযাপন করেছে। জাতীয় পতাকা উত্তোলন, শোভাযত্রা শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে মোনাজাত করা হয়।
আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সরওয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনায় প্রধান আলোচক ছিলেন, বঙ্গবন্ধু প্রকৌশল পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান। আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন একে এম খাদেমুল ইসলাম আবুল বাসার, মাহবুবুল হক, মাসুদ আল ফারুক, আরজাদ হোসেন, মোতাসিম বিল্লাহ, আব্দুস সাত্তার, উৎপাল রায়, বাহার উদ্দিন মৃধা, আব্দুর রশিদ প্রমুখ।
আশ্বাস
গোদাগাড়ী উপজেলার পাকড়ী ইউনিয়নে আদিবাসী সমাজ উন্নয়ন সংস’া (আশ্বাস)। বিজয় দিবসের তাৎপর্য নিয়ে আলোচনা শেষে ৬টি প্রাক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের খেলা ধুলা শেষে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। পরে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ করেন আদিবাসী সমাজ উন্নয়ন সংস’ার (আশ্বাস) এর প্রকল্প সমন্বয়কারী মাইকেল টুডু ও হুরেন মুরমু।
আদর্শ বিদ্যালয়
আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সভাপতিত্ব করেন, প্রধান শিক্ষক আবু সাঈদ জহুরুল হাসান। বক্তব্য রাখেন, নাসিদা বেগম, সিদ্দিকুর রহমান প্রশান্ত কুমার সিংহ রায়।
ধাধাস উচ্চ বিদ্যালয়
পুঠিয়া উপজেলার ধাধাস উচ্চ বিদ্যালয়ে বিজয়ের স্মৃতি চারণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। প্রধান অতিথি ছিলেন, (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের সাংসদ আব্দুল ওয়াদুদ দারা, বিশেষ অতিথি ছিলেন বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন প্রকল্পের (বিএমডিএ) চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী ইকবাল হোসেন মিন্টু। উপসি’ত ছিলেন, মহানগর যুবলীগ সভাপতি রমজান আলী, মোশারফ হোসেন বাচ্চু।
রাজশাহী কোর্ট একাডেমী
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাজশাহী কোর্ট একাডেমীতে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, অত্র বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক এস এম আসাদুজ্জামান। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, অত্র বিদ্যালযের শিক্ষক মাহবুবুল ইকরাম, শাহিন উদ্দিন, গোলাম মোর্তুজা এবং নীতিশ কুমার প্রামানিক। উক্ত সমাবেশে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইসমত আরা ইভা এবং রুবেল আলী। বক্তারা বিজয় দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্যের উপর বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করেন। শেষে শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন অত্র বিদ্যালযের মাওলানা আব্দুল আজিজ।
রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল
রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলে পালিত হয় মহান বিজয় দিবস। জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিনের কার্যক্রম শুরু হয়।
দ্বিতীয় পর্যায়ে বিদ্যালয় মিলনায়তনে দুই গ্রুপে রচনা প্রতিযোগিতা হয়। প্রধান শিক্ষক ড. নূরজাহান

পাতাটি ৩৫২ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন