logo

   

বিস্তারিত সংবাদ

News Photo নগরীর অফিস-আদালত খুলেছে, কাটেনি ঈদের আমেজ
টানা ৫ দিনের ঈদুল আজহার ছুটির পর গতকাল রোববার থেকে অফিস-আদালত খুলেছে। তবে প্রথম দিনে তেমন কর্মচাঞ্চল্যতা ফিরে আসেনি। এখনো ঈদের ছুটি কাটিয়ে অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারী অফিসে ফিরে না আসায় অফিস-আদালত পাড়ায় গতকাল অনেকটায় ফাঁকা ছিলো। ফলে কাজকর্মও খুব একটা হয়নি। একেবারে জরুরী ছাড়া ছোট খাটো তেমন কাজকর্ম হয়নি। এদিকে গতকালও রাজশাহী নগরী ছিলো অনেকটায় ফাঁকা ছিলো। দোকানপাটগুলোও খুব একটা খুলেনি। সবকিছু মিলে রাজশাহীতে এখনো পুরোদমে ঈদের আমেজ বিরাজ করছে।
খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, পবিত্র ঈদুল আজহার জন্য গত মঙ্গলবার থেকে ৫ দিনের সরকারী ছুটি শুরু হয়। সেই অনুযায়ি ছুটি শেষে গতকাল রোববার সরকারী-বেসরকারী অফিসগুলোতে ছিলো প্রথম কার্য দিবস। তবে অধিকাংশ এনজিও প্রতিষ্ঠানই শনিবার থেকেই কার্যক্রম শুরু করে। গতকাল সরকারী অফিসসহ সবগুলো বেসরকারী অফিস খুললেও তেমন কর্মচাঞ্চল্যতা দেখা যায়নি। এদিকে রাজশাহী নগরীতে গতকালও দোকানপাটগুলো এখানো খুব একটা খুলেনি। ঈদে বাড়ি ফিরা নগরীর হাজার হাজার মানুষ এখনো নগরীতে না ফেরায় পুরো নগরী জুড়ে এখনো ঈদের আমেজ বিরাজ করছে বেশ জোরে সরে। ঈদের আমেজ না কাটায় রাজশাহী নগরীতে ফিরে আসেনি কর্মব্যস্ততা। রাজশাহী নগরীর রাস্তাঘাটগুলোও ছিলো অনেকটায় ফাঁকা ফাঁকা ছিলো। যানবাহনগুলোতেও তেমন ভিড় লক্ষ্য করা যায়নি।
নগরীর সামশুর রহমান নামের একজন রিক্সা চালক বলেন, গত ঈদের পর গত দু’দিন ধরে রিক্সা চালাচ্ছি। কিন্তু আগের মতো তেমন ভাড়া হচ্ছে না। ঈদের আগে যেখানে প্রতিদিন গড়ে দুই থেকে আড়াইশ’ টাকা ভাড়া হচ্ছিলো। কিন্ত গত দু’দিন ধরে একদিনের আয়ও হয়নি।
নগরীর হুমায়ন নামের একজন অটোরিক্সা চালকের কণ্ঠেও একই শুর লক্ষ্য করা গেছে। তিনি বলেন, এখনো লোকজন ঈদ শেষে গ্রাম থেকে বাড়িতে খুব একটা ফিরেননি। কাজেই আরও দুই একদিন এ অবস্থা চলবে।
এদিকে আগামী মঙ্গলবার, বুধবার থেকে পরিস্থিতি আবার স্বাভাবিক হবে বলে মনে করছেন নগরবাসী।

পাতাটি ৩০৪ বার প্রদর্শিত হয়েছে।

সংগ্রহকারী:

 মন্তব্য করতে লগিন করুন