logo



আমার লেখালেখি



আমার প্রিয় লেখা



আমার ছবিঘর



অনলাইনে আছেন

আব্দুল্লাহ-আল-নোমান এর নতুন বন্ধু নাজমুল


আমাদের সাথে আছেন ১০ জন অতিথী
  

আব্দুল্লাহ-আল-নোমান এর অনলাইন ডায়েরী

আপনাদের সকলের উপর আল্লাহর শান্তি, রহমত এবং বরকত বর্ষিত হোক

ডায়েরী লিখছেন ৭ বছর ৬ মাস ২৫ দিন
মোট পোষ্ট ৬১টি, মন্তব্য করেছেন ১৫৪টি


তিন দারোগার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

লিখেছেন : আব্দুল্লাহ-আল-নোমান       তারিখ: ১০-০৫-২০১০



রাজশাহীর তানোর থানার তিন দারোগার নামে থানায় নির্যাতনসহ ২ লাখ টাকার ফসলহানির মামলা হলেও কৌশলে ফঁসকে গেছেন ওসি। উপজেলার ব্যালনপাড়া গ্রামের আসলাম আলী বাদি হয়ে তানোর থানার ওই তিন দারোগাসহ ২০ জনকে আসামী করে রাজশাহীর চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে গত ২ এপ্রিল মামলাটি দায়ের করেন।

আদালত শুনালী শেষে রাজশাহী পুলিশ সুপারকে মামলার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। পুলিশ সুপার বিষয়টি ৯ মে সরজমিনে তদন্ত করেছেন। এঘটনার সাথে জড়িত ওসি নিজেকে বাঁচাতে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে নিরপরাধ ওই তিন দারোগার নামে মামলা করিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে, ওসি এসএম বজলুর রশিদ এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, ঘটনার সাথে ওই দারোগারা হয়তো জড়িত ছিলেন, তাই এমন মামলা হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক দারোগা বলেন, ওসির নির্দেশে আমরা আসলামকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে এসেছি। তবে, থানায় নির্যাতনের বিষয়টি তারা অস্বীকার করে ওসির মাধ্যমে এমনটি ঘটেছে বলে দাবি করেছেন। তারা আরো বলেন, এই ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী ওসি নিজেকে বাঁচানোর তাগিদে বাদির সাথে আতাঁত করে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করিয়েছেন।

ঘটনা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মাসিন্দা গ্রামের সুবল হলদার ব্যালনপাড়া গ্রামের আসলামের বিরুদ্ধে থানায় কথিত অভিযোগ করেন। ওই অভিযোগের কোন তদন্ত ছাড়াই রাজনৈতিক নেতাদের দ্বারা ওসি প্রভাবিত হয়ে আসলাম উদ্দিনকে থানায় ধরে আনার নির্দেশ দেন। ওসির নির্দেশে এসআই জাকারিয়া, সাকিল আহম্মেদ ও এএসআই চঞ্চল তার বাড়ি থেকে ধরে এনে থানা হাজতে আটক রেখে নির্যাতন চালিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলহাজতে প্রেরণ করেন। পরবর্তীতে ওসির সহযোগিতায় সুবল হলদার তার লোকজনসহ দারোগাদের সাথে নিয়ে আসলামের ২ লাখ টাকার ফসলহানির ঘটনা ঘটায়।

এরপরও ওসি এতটুকু সংকোচ না করে আসলামের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেন। ওসির এমন অত্যাচারের বিরুদ্ধে বাদি আসলাম উদ্দিন আদালতের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেবেন এমন তথ্যের ভিত্তিতে রাজনৈতিক নেতার মাধ্যমে ওসি নিজেকে বাঁচানোর তাগিদে কৌশলগতভাবে ওই দারোগাদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করান।

৩০৩১ বার পঠিত

 
মন্তব্য করতে লগিন করুন।
  

সাম্প্রতিক মন্তব্য







ছবিঘরের নতুন ছবি